অস্ত্র নিয়ে ইলিয়াস কাঞ্চনের বিমান বন্দরে প্রবেশ; ৫ কর্মচারী বরখাস্ত

আপডেট: মার্চ ৬, ২০১৯
0
ছবি সংগৃহীত

ডেস্ক রিপোর্ট:
হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তল্লাশি গেট দিয়ে চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের পিস্তল নিয়ে ঢুকে পড়ার ঘটনায় বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ৫ কর্মীকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তিন সদস্যের তদন্ত কমিটিও গঠন করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন শাহজালাল বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন আবদুল্লাহ আল ফারুক।

তিনি বলেন, পিস্তল সঙ্গে নিয়ে বিমানবন্দরের স্ক্যানিং মেশিন পার হওয়ার ঘটনার তদন্তে নেমেছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তবে কমিটির সদস্যদের নাম এখনই প্রকাশ করতে অপরাগতা প্রকাশ করেছেন তিনি।

সম্প্রতি চট্টগ্রামে বিমান ছিনতাই চেষ্টার ঘটনায় বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন উঠে বিভিন্ন মহলে। ওই ঘটনার তদন্ত শেষ না হতেই আবারও প্রশ্নের মুখে পড়লো বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এবার খেলনা নয়, আসল পিস্তল নিয়েই বিনা বাধায় স্ক্যানিং মেশিন পার হওয়ার ঘটনা ঘটেছে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে।

মঙ্গলবার বিকেলে নভোএয়ারের একটি আভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে চট্টগ্রাম যাওয়ার পথে সঙ্গে আগ্নেয়াস্ত্রটি নিয়ে যান নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) আন্দোলনের চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন।

এ সময় অভ্যন্তরীণ টার্মিনালের প্রথম গেটের স্ক্যানার মেশিনের নজর এড়িয়ে ৯এমএম পিস্তল আর ১০ রাউন্ড গুলিসহ ব্যাগ নিয়ে বিনা বাধায় স্ক্যানিং মেশিন পার হন তিনি।

এরপর নভোএয়ারের বুকিং কাউন্টারে যান ইলিয়াস কাঞ্চন । জানান, মনের অজান্তে ব্যাগে থাকা লাইসেন্স করা পিস্তলটি বাসায় রেখে আসতে ভুলে যান তিনি। কিন্তু তার সঙ্গে নিয়ে আসা পিস্তল ও গুলি ভর্তি ব্যাগ স্ক্যানারে ধরা পড়েনি। এটি সঙ্গে নিয়েই চট্টগ্রামে যেতে চান বলে কর্মকর্তাদের জানান ইলিয়াস কাঞ্চন।

বিষয়টি জানার সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে শাহজালাল বিমানবন্দরের মেম্বার সিকিউরিটি শাহ এমদাদুল হক, বিমানবন্দরের পরিচালকসহ (নিরাপত্তা) বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তা উপস্থিত হন ।
প্রথম স্ক্যানিংয়ে ইলিয়াস কাঞ্চনের ব্যাগে থাকা পিস্তল ধরা না পড়ার বিষয়টি দুঃখজনক বলে জানিয়েছেন শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিরাপত্তা পরিচালক নূরে আলম সিদ্দিকী।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারির বিমান ছিনতাই চেষ্টা ঘটনার পর শাহজালালসহ দেশের সব কটি বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করা হয়েছে বলে সিভিল এভিয়েশন থেকে জানানো হয়েছিল।

ওই দিনে বিকেলে ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া দুবাইগামী বিজি-১৪৭ ফ্লাইটে খেলনা পিস্তল নিয়ে উঠে বিমান ছিনতাইয়ের চেষ্টা করেন পলাশ আহমেদ ওরফে মাহিবি নামে এক যুবক।
ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, সে সময় তার সঙ্গে থাকা খেলনা পিস্তলটি শাহজালাল বিমানবন্দরের স্ক্যানিং মেশিনে ধরা পড়েনি।

বিষয়টি নিয়ে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের তদন্তনাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার (৫ মার্চ) আবার এ ঘটনাটি ঘটল।।

LEAVE A REPLY