গাজীপুরে অ্যাড. সোহেল হত্যা মামলার ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামীকে ১১ বছর পর গ্রেফতার

আপডেট: অক্টোবর ৩১, ২০১৯
0

গাজীপুর সংবাদদাতাঃ গাজীপুরে আলোচিত অ্যাডভোকেট সোহেল হত্যা মামলার ফাঁসির দন্ডাদেশ প্রাপ্ত পলাতক আসামী সজলকে প্রায় ১১ বছর পর বৃহষ্পতিবার গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১’র সদস্যরা। তাকে ঢাকার যাত্রাবাড়ী থানাধীন সায়দাবাদ জনপদ মোড় এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। র‌্যাব-১’র স্পেশালাইজ কোম্পানী পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার লেঃ কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল-মামুন এ তথ্য জানিয়েছেন।

গ্রেফতারকৃতের নাম- মোঃ সায়মন শাহরিয়ার ওরফে সজল (২৫)। সে ঢাকার যাত্রাবাড়ি থানার সায়দাবাদ জনপদের মোড় এলাকার ১০/৬(এ) নং বাসার মোঃ আব্দুর রউফের ছেলে।

র‌্যাব-১’র ওই কোম্পানী কমান্ডার জানান, গাজীপুরে আলোচিত অ্যাডভোকেট ফিরোজ্জামান ওরফে সোহেল হত্যা মামলার ফাঁসির দন্ডাদেশ প্রাপ্ত পলাতক আসামী সায়মন শাহরিয়ার ওরফে সজল বৃহষ্পতিবার ভোরে ঢাকার যাত্রাবাড়ী থানাধীন সায়দাবাদ জনপদের মোড় এলাকায় অবস্থান করছে।

এ গোপন সংবাদ পেয়ে র‌্যাব-১’র স্পেশালাইজ কোম্পানী পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার লেঃ কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল-মামুন এর নেতৃত্বে র‌্যাব-১এর সদস্যরা সেখানে অভিযান চালিয়ে ঘটনার প্রায় ১১ বছর পর পলাতক আসামী সজলকে গ্রেফতার করে।
প্রসঙ্গতঃ ২০০৮ সালের মার্চ মাসে সায়মন শাহরিয়ার ওরফে সজল ও তার সহযোগীরা গাজীপুর জেলার জয়দেবপুর থানাধীন দক্ষিন ছায়াবিথী (সোহেলের দোকান ঘর সংলগ্ন বাড়ী) এলাকায় অ্যাডভোকেট ফিরোজ্জামান ওরফে সোহেলকে (২৮) নৃশংসভাবে খুন করে।

এঘটনায় ওই মাসের ১১ তারিখে জয়দেবপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। মামলার বিচার শেষে আদালত আসামী সজলকে পেনাল কোডের ৩০২ ধারায় দোষী সাব্যস্থ করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ড কার্যকরের আদেশ দেন। একই রায়ে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দেওয়া হয়।

ঘটনার পর থেকে গ্রেফতার এড়ানোর লক্ষ্যে সজল প্রায় ১১ বছর আতœগোপন করে বিভিন্নস্থনে পালিয়ে বেড়াচ্ছিল।

LEAVE A REPLY