গাজীপুরে বন্যপ্রাণি সংরক্ষণ ও আবাস্থল উন্নয়ন বিষয়ক প্রশিক্ষণ সমাপ্ত

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮

গাজীপুর সংবাদদাতাঃ গাজীপুরে বাংলাদেশের বন্য প্রাণি সংরক্ষন ও আবাসস্থল উন্নয়ন শীর্ষক ৫ম প্রশিক্ষণ কর্মসূচী বুধবার বিকেলে সম্পন্ন হয়েছে। বন এবং বন্য প্রাণি বিষয়ক দেশের একমাত্র প্রশিক্ষণ কেন্দ্র গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মাস্টারবাড়িস্থিত শেখ কামাল ওয়াইল্ড লাইফ সেন্টারে এ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়।

প্রশিক্ষণ সমন্বয়ক তপন কুমার দে জানান, গাজীপুরের ওই সেন্টারে গত ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশের বন্য প্রাণি সংরক্ষন ও আবাসস্থল উন্নয়ন শীর্ষক এ প্রশিক্ষণ শুরু হয়। এটি ছিল শেখ কামাল ওয়াইল্ডলাইফ সেন্টারের এ সংক্রান্ত ৫ম ব্যাচ। প্রশিক্ষণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক, সুন্দরবন, কুমিল্লা, সিলেট ও খাগড়াছড়ি বনবিভাগের ২৮জন কর্মকর্তা-কর্মচারি অংশ নেন। বুধবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে এ প্রশিক্ষণ সমাপ্ত হয়। সমাপনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বাংলাদেশের বন্য প্রাণি সংরক্ষন ও আবাসস্থল উন্নয়ন প্রকল্প পরিচালক মিহির কুমার দো, প্রশিক্ষণ সমন্বয়ক তপন কুমার দে, ইকোলজিস্ট মো. আজিজার রহমান, সরীসৃপবিদ মো. সোহেল রানা বক্তব্য রাখেন। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে সনদ বিতরন করা হয়।

শেখ কামাল ওয়াইল্ড লাইফ সেন্টার প্রকল্পের পরিচালক মিহির কুমার দো জানান, শেখ কামাল ওয়াইল্ড লাইফ সেন্টারটি হলো বন এবং বন্য প্রাণি বিষয়ক দেশের একমাত্র প্রশিক্ষণ কেন্দ্র। ৫ম ব্যাচে এবার এখানে বনবিভাগের ২৮জন কর্মকর্তা-কর্মচারিকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। যারা নিজ নিজ কর্মস্থলে গিয়ে চাকুরি জীবনে অবদান রাখবে। পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিশষয়ক মন্ত্রণালয়ের আওতায় ২০১৭-১৮ অর্থ বছর থেকে এখানে ট্রেনিং কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তিন শতাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারিকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, বন অধিদপ্তরের বিভিন্ন কর্মকর্তারা ওই প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনা করছেন।

প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণকারী সাফারি পার্কের এনিমেল কিপার মো. রফিকুল ইসলাম জানান, এ প্রশিক্ষণে অংশ নিয়ে বন ও বন্যপ্রাণি সম্পর্কে অনেক কিছ’ জানতে পেরেছি। বিশেষ করে বন ও বন্যপ্রাণি আইন, ফরেনসিক ল্যাব, বন্যপ্রাণি অপরাধ দমন, বিলুপ্ত ও বিলুপ্তপ্রায় প্রাণি এবং মহাবিপন্ন উদ্ভিদ ও প্রাণি সম্বন্ধে জানতে পেরেছি। কর্মক্ষেত্রে এ প্রশিক্ষণ অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।