‘ছাত্রলীগ করলেই সাত খুন মাফ’এই নীতি পরিহার করুন- ছাত্রদল

আপডেট: নভেম্বর ১২, ২০১৯
0

জাবিতে ছাত্রলীগের হামলা ও ইবিতে ব্যানার পুড়ানোয় ছাত্রদলের নিন্দা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক, সাংবাদিক ও সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের বর্বরোচিত হামলা এবং ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তিচ্ছুদের শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রধান ফটকের পাশে ব্যানার লাগালে গতরাতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী তন্ময় সাহা টনির নেতৃত্বে সকল ব্যানার পুড়িয়ে দেয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল।

আজ এক বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, ছাত্রলীগ দেখালো “অফেন্স ইজ দ্যা বেস্ট ডিফেন্স-আক্রমণই শ্রেষ্ঠ প্রতিরক্ষা”। যা ছাত্রলীগ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর হামলা করে দেখালো। যেখানে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সাথে তাদের একাত্মতা পোষণ করার কথা, সেখানে উল্টো যৌক্তিক আন্দোলনে অংশগ্রহণকারী সাধারণ শিক্ষার্থী বিশেষ করে ছাত্রীদের উপর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ অস্ত্র নিয়ে যে বর্বরোচিত হামলা চালায় তা চরম অসভ্যতা। যেটি ছাত্রলীগের পুরনো অভ্যাস। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুদের শুভেচ্ছা জানিয়ে লাগানো ব্যানার পুড়িয়ে দিয়ে ছাত্রলীগ তাদের পূর্বসূরীদের ঐতিহ্য ধরে রেখেছে।

নেতৃদ্বয় আরও বলেন, পুরান ঢাকায় বিশ্বজিৎকে হত্যা করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ তাদের প্রকৃত রূপ তুলে ধরেছিল। তারই ধারাবাহিকতায় একের পর এক সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে ছাত্রলীগ। গতকাল আন্দোলনরত সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর হামলা তারই একটি উদাহরণ। ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীদের জন্য সাধারণ শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবন আজ বিপন্ন। কুষ্টিয়ায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের অস্ত্র প্রশিক্ষণের আলোচিত সেই ঘটনা যেখানে ছাত্রলীগের এক নেতা সাবেক দুই নেতাকে বনের মধ্যে পিস্তল চালাতে শিখাচ্ছে। সেই প্রশিক্ষণ প্রত্যেকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছড়িয়ে দিয়েছে ছাত্রলীগ। তাদের হাত থেকে ছাত্র-শিক্ষক কেউই রেহাই পাচ্ছেন না। মানুষ এখন জঙ্গিবাদের সাথে এদের তফাৎ কোথায়- জানতে চায়?

নেতৃদ্বয় অবিলম্বে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনকারীদের উপর হামলাকারী ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবি জানান এবং ‘ছাত্রলীগ করলেই সাত খুন মাফ’এই নীতি পরিহার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান। একই সাথে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদলের ব্যানার পুড়ানোর ঘটনায় জড়িত ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীদের খুজে বের করে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানান।

LEAVE A REPLY