জাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের পদত্যাগ

আপডেট: নভেম্বর ৮, ২০১৯
0

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের এস এম আবু সুফিয়ান চঞ্চল পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দফতর সম্পাদক আহসান হাবিব পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত করে সাংবাদিকদের জানান, তিনি গত মঙ্গলবার চঞ্চলের পদত্যাদপত্র হাতে পেয়েছেন। তবে কী কারণ দেখিয়ে চঞ্চল পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন সে বিষয়ে কিছু বলেননি হাবিব।

তিনি আরও বলেন, আমি পদত্যাগপত্র পড়ে দেখিনি। ভারপ্রাপ্ত সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকের কাছে তা হস্তান্তর করা হয়েছে। তিনি ব্যক্তিগত কারণে পদত্যাগ করে থাকতে পারেন। পদত্যাগের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হলে প্রেস রিলিজ আকারে তা জানিয়ে দেওয়া হবে।

গত ২৮ আগস্ট থেকে ক্যাম্পাসের বাইরে অবস্থান করছেন চঞ্চল। এরপর শাখা ছাত্রলীগের কোনো কর্মসূচিতে তাকে দেখা যায়নি। এর আগে গত ২৩ আগস্ট একটি জাতীয় দৈনিকের খবরে বলা হয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ হাজার ৪৪৫ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প বাধাহীনভাবে সম্পন্ন করতে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম গত ৯ আগস্ট শাখা ছাত্রলীগের তিনটি পক্ষকে এক কোটি টাকা ভাগ করে দিয়েছেন।

সভাপতি মো. জুয়েল রানা ৫০ লাখ, সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান চঞ্চল ২৫ লাখ এবং অপর পক্ষ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন ও তার অনুসারীরা ২৫ লাখ টাকা পান বলে ওই খবরে বলা হয়।

গণমাধ্যমের কাছে তখন চঞ্চল এ অভিযোগ অস্বীকার করেন। তবে ছাত্রলীগে চঞ্চলের বিরোধী গ্রুপ গণমাধ্যমে দাবি করে, টাকা পেয়ে কাউকে যেন ভাগ দিতে না হয় সেজন্য লাপাত্তা চঞ্চল। এরপর থেকে তিনি আর শাখা ছাত্রলীগের সঙ্গে সেভাবে যোগাযোগ রাখেননি।

উন্নয়ন প্রকল্প ঘিরে প্রাণ-প্রকৃতি রক্ষার আন্দোলনের মধ্যে ওই খবর প্রকাশিত হলে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে আন্দোলন শুরু হয়। সে আন্দোলন এখন উপাচার্যের অপসারণের দাবিতে পরিবর্তিত হয়েছে। এ আন্দোলনকে কেন্দ্র করেই অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

২০১৬ সালের ২৭ ডিসেম্বর জুয়েল রানাকে সভাপতি ও আবু সুফিয়ান চঞ্চলকে সাধারণ সম্পাদক করে এক বছরের জন্য শাখা কমিটির অনুমোদন দেয়া হয়। কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ার পর প্রায় দুই বছর ধরে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিতে চলছে জাবি ছাত্রলীগ।

LEAVE A REPLY