ডুমুরিয়ার রাজনীতির মাঠে শিক্ষাসেবক ও অতিঃ সচিব (অবঃ) ইঞ্জিনিয়ার ইলিয়াস হোসেন

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৯
0

মোঃ আনোয়ার হোসেন আকুঞ্জী, খুলনা ব্যুরোঃ
বিশিষ্ট শিক্ষাসেবক ও অবসরপ্রাপ্ত অতিরিক্ত সচিব ইঞ্জিনিয়ার সরদার ইলিয়াস হোসেন এখন ডুমুরিয়ার রাজনৈতিক অঙ্গনে নতুন মুখ। আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশি হিসেবে তিনি নেমে পড়েছেন সমাজসেবায়। চাকুরির পাশাপাশি স্কুল, কলেজ, মাদরাসা, রাস্তাঘাট, কালভার্ট, ব্রীজ, খাল ও নদী খননে সক্রিয় ভূমিকায় সরদার ইলিয়াস হোসেন এলাকার গণমানুষের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয়।
সরদার ইলিয়াস হোসেন ১৯৫৮ সালে খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার নোয়াকাটি গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি সাহস ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি ও ৪বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান মরহুম মুনসুর আলি সরদারের পুত্র। সরদার ইলিয়াস হোসেন অত্যন্ত মেধাবি ছাত্র ছিলেন। ১ম শ্রেণি থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত সকল পরীক্ষায় তিনি ১ম স্থান অধিকার করেছিলেন। তিনি সাহস নোয়াকাটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ১৯৬৯ সালে ৮ম শ্রেণিতে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পান এবং ১৯৭২ সালে এসএসসি পরীক্ষায় ঐ বিদ্যালয় প্রথম স্থান অধিকার করেন। পরবর্তীতে সরকারি বিএল কলেজ থেকে এইসএসসি এবং খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিদ্যালয় হতে কৃতিত্বের সাথে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি অর্জন করেন। সরকারি বৃত্তি নিয়ে তিনি ১৯৯৭ সালে নেদারল্যান্ড ইনস্টিটিউট অব সোস্যাল স্ট্যাডিজ হতে পোস্ট গ্রাজুয়েট ডিপ্লোমা ডিগ্রি অর্জন করেন। সরদার ইলিয়াস হোসেন ১৯৮৩ সালে ১ম শ্রেণির ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প কর্পোরেশন এ যোগ দেন।
১৯৮৪ সালে অনুষ্ঠিত ৫ম বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে ব্যক্তি জীবনের সোনালী স্বপ্নের সিঁড়িতে পা রাখেন। ১৯৮৬ সালে তিনি সহকারি প্রধান হিসেবে পরিকল্পনা কমিশনে যোগ দেন। কর্মজীবনে তিনি পরিকল্পনা, শিক্ষা, মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ, স্বরাষ্ট্র, শিল্প ও অর্থ মন্ত্রণালয়সহ ১০টি বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ পদে কর্মরত ছিলেন। সর্বশেষ তিনি ১৯১৭ সালে পরিকল্পনা কমিশনে বিভাগীয় প্রধান হিসেবে অতিরিক্ত সচিব পদে কর্মরত অবস্থায় অবসর গ্রহণ করেন। সরকারি চাকুরি হতে লিয়েন নিয়ে ডিএফআইডির সাহায্যপুষ্ট প্রকল্পে ২ বছর এবং বিশ্ব ব্যাংক সাহায্যপুষ্ট প্রকল্পে ১ বছর বিশেষজ্ঞ পরামর্শক হিসেবে কাজ করেছেন।
চাকুরি জীবনে সরদার ইলিয়াস হোসেন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জার্মানি, নেদারল্যান্ড, বেলজিয়াম, সুইজারল্যান্ড, জাপান, চীন, মালয়েশিয়, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ডে স্ট্যাডি ভিজিট এ প্রশিক্ষণ নিয়েছেন।
সরকারি চাকুরি করার পাশাপাশি সরদার ইলিয়াস হোসেন সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ পদে যেমন; বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস ইকনমিক এ্যাসোসিয়েশন এর সভাপতি, অফিসার্স ক্লাব ঢাকার সদস্য, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটের ফেলো, বাংলা একাডেমির জীবন সদস্য, বৃহত্তর খুলনা সমিতির সহ সভাপতি, ডুমুরিয়া উপজেলা সমিতি ঢাকার সভাপতিসহ বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।
তিনি চাকুরিকালে ডুমুরিয়া উপজেলার বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, মাদরাসা, রাস্তাঘাট, কালভার্ট, ব্রীজ,খাল ও নদী খননে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছেন। গরিব মেধাবি শিক্ষার্থী ও অসুস্থদের মাঝে আর্থিক সহায়তা প্রদান করে থাকেন।
সরদার ইলিয়াস হোসেন রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান। সরসরি রাজনীতি না করলেও তিনি কখনও রাজনীতি থেকে দূরে নয়। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে খুলনা ৫ আসনে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু পরিষদ ডুমুরিয়া উপজেলা শাখা নির্বাহী সদস্য। ছাত্রজীবনে তিনি খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বর্তমানে) শাখা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি ছিলেন।
চাকুরি থেকে অবসর নিয়ে বিশিষ্ট শিক্ষাসেবি ইঞ্জিনিয়ার সরদার ইলিয়াস হোসেন উপজেলা নির্বাচনে অংশ নিতে চান। তিনি অঙ্গিকার ব্যক্ত করে এ প্রতিবেদককে বলেন; উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে উপজেলা প্রশাসন ও সমাজ থেকে দুর্নীতি দূর করে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করবেন। সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক, যৌতুক ও বাল্য বিবাহের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলবেন। তিনি স্থানীয় সম্পদ মোবিলাইজেশনের মাধ্যমে উপজেলার অবকাঠামো উন্নয়নসহ তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে ডুমুরিয়াকে ডিজিটাল উপজেলায় পরিণত করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

LEAVE A REPLY