ঢাকায় অরুন্ধতীর বক্তৃতার অনুমতি বাতিল করল পুলিশ

আপডেট: মার্চ ৫, ২০১৯
0

পুলিশি বাধায় রাজধানীতে বুকারজয়ী লেখক ও অ্যাকটিভিস্ট অরুন্ধতী রায়ের পূর্বনির্ধারিত একটি অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়েছে।
আজ মঙ্গলবার ফার্মগেটের কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে ওই আলোচনায় সভায় বক্তব্য রাখার কথা ছিল তার। কিন্তু গত রাতে (সোমবার) অনিবার্য কারণ দেখিয়ে সেই অনুষ্ঠানের অনুমতি বাতিল করেছে পুলিশ।
ফলে আপাতত অরুন্ধতী রায়ের মঙ্গলবারের বক্তৃতা অনুষ্ঠানটি স্থগিত করা হয়েছে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন আয়োজক প্রতিষ্ঠান ছবিমেলার সম্পাদক ও আলোকচিত্রী শহিদুল আলম।

বিবৃতিতে বলা হয়, ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) শেষ রাতে (সোমবার) জানিয়েছে যে, গত ১৬ ফেব্রুয়ারি আমাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট অডিটরিয়ামে অরুন্ধতী রায়ের বক্তব্য রাখার জন্য যে অনুমতি দেয়া হয়েছিল অনিবার্য কারণে তা প্রত্যাহার করা হয়েছে।
বিবৃতিতে আরও বলা হয়, এই অনুষ্ঠান আয়োজনে অনেক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছিল। আমরা এই সিদ্ধান্তে অত্যন্ত অবাক হয়েছি এবং সবাই জানি এই বিখ্যাত লেখকের প্রথমবারের বাংলাদেশ সফরে তাকে দেখার জন্য যারা অপেক্ষা করছিলেন তাদের জন্য এটা কতটা হতাশার।
ডিএমপির এমন সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে অনুষ্ঠান বাতিল করার জন্য বিবৃতিতে সবার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন আয়োজকরা।

জানা গেছে এশিয়ার মর্যাদাপূর্ণ আলোকচিত্র উৎসব ছবি মেলায় অংশ নিতে গত ৩ মার্চ ঢাকা এসেছেন বুকার পুরস্কার বিজয়ী ভারতীয় লেখক অরুন্ধতী রায়। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টায় রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে ‘অ্যাটমোস্ট এভরিথিং’ শীর্ষক আলোচনায় সভা অংশ নেয়ার কথা ছিল তার।

এতে অংশ নিতে আগ্রহীদের জন্য অনলাইন নিবন্ধনও চালু করেছিলেন আয়োজকরা।
এ ব্যাপারে ডিএমপির তেজগাঁও থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম কাজল গণমাধ্যমকে বলেন, ‘অনিবার্য কারণবশত কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে ছবি মেলা উৎসবের ‘অ্যাটমোস্ট এভরিথিং’ শীর্ষক আলোচনা সভা বাতিল করা হয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হলে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট কর্তৃপক্ষ তা বাতিল করে। এর বেশি কিছু আপনাকে বলতে পারছি না।’
প্রসঙ্গত ধানমণ্ডির একাধিক ভেন্যুতে চলছিল ‘ছবি মেলা’। এবারের প্রদর্শনীতে ২১টি দেশের ৪৪ জন শিল্পীর ৩৩টি ছবি প্রদশিত হচ্ছে। এছাড়া বিশ্বজুড়ে থাকা বিশিষ্ট আলোকচিত্র অনুশীলনকারীদের নিয়ে বিভিন্ন বিষয় বস্তুর ওপর ভিত্তি করে রয়েছে আটটি কর্মশালা। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া এই উৎসব চলবে ৯ মার্চ পর্যন্ত।

LEAVE A REPLY