নূরুল কোরআন ফাউন্ডেশনের হিফজ ও ক্বিরাত প্রতিযোগিতার প্রাক্ চূড়ান্ত বাছাইপর্ব সম্পন্ন

আপডেট: অক্টোবর ৩১, ২০১৯
0

নূরুল কোরআন ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ’র ‘হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতা-২০১৯’-এর প্রাক চূড়ান্ত বাছাইপর্ব শেষ হয়েছে। এতে চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য হিফজ ও ক্বিরাত বিভাগ থেকে মোট ৩৩ জন টিকিট পেয়েছেন। গতকাল (৩০ অক্টোবর) বুধবার রাজধানী ঢাকার কুড়িল মেম্বারবাড়ি জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে এই বাছাইপর্ব অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।

সকাল ৯টা থেকে হিফজ ও ক্বিরাত বিভাগের প্রতিযোগিদের পৃথকভাবে বাছাই পরীক্ষা শুরু হয়ে বিকেল ৩টায় শেষ হয়। এতে প্রথম পর্বে উত্তীর্ণ হওয়া ১৩০ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করেন। হিফজ বিভাগের প্রতিযোগীদের পরীক্ষা গ্রহণ করেন হাফেজ ক্বারী মাওলানা জহিরুল ইসলাম এবং ক্বিরাত বিভাগের পরীক্ষা গ্রহণ করেন হাফেজ ক্বারী মাওলানা এ.কে.এম ফিরোজ।

বাছাই পর্বের পরীক্ষা শেষে বিকেল ৪টায় প্রতিযোগী ও তাদের অভিভাবক, বিশিষ্ট উলামায়ে কেরাম ও স্থানীয় গণমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে চূড়ান্ত প্রতিযোগিতার জন্য টিকিট পাওয়া ৩৩ প্রতিযোগির নাম ঘোষণা করা হয়।

বিশিষ্ট সমাজসেবক আলহাজ্ব মুশফিকুর রহমানের সভাপতিত্বে বাছাইপর্বের ফলাফল ঘোষণা অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ফাউন্ডেশনের মহাসচিব, বারিধারা জামে মসজিদের খতীব মাওলানা মাসউদ আহমদ। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নূরুল কোরাআন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও জামিয়া মাদানিয়া বারিধারার সিনিয়র শিক্ষক মুফতি আমজাদ হোসাইন হেলালী।

ফলাফল ঘোষণা অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন পিএইচপি কোরআনের আলো চেয়ারম্যান মাওলানা ক্বারী আবু ইউসুফ, নূরুল কোরআন ফাউন্ডেশনের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা এ কে এম সিদ্দিকুল ইসলাম (তোফায়েল), যুগ্ম মহাসচিব মুফতী এনামুল হক সিদ্দিকী, অর্থ-সম্পাদক মাওলানা মুজিবুর রহমান ফরাজী, মুফতি মুহাম্মদ জাবের কাসেমী, মুফতি রূহুল আমিন কাসেমী, মাওলানা মাহমুদুল হাসান, মুফতি তাহের সাঈদ, আলহাজ্ব ইসরাফিল আশরাফ, আলহাজ্ব শামসুল হক মোল্লা, আলহাজ্ব ইসহাক মিয়া, আলহাজ্ব কাজী হযরত আলী, আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দীন প্রমুখ। এছাড়াও বসুন্ধরা এলাকার বিভিন্ন মসজিদের ইমাম ও খতীব’সহ শতাধিক উলামায়ে কেরাম ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

প্রাক চূড়ান্ত বাছাই পর্বে বিজয়ী হওয়া ৩৩ জন প্রতিযোগি আগামী ১৬ নভেম্বর শনিবার গ্রান্ড ফাইল প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের টিকিট পেয়েছেন। গ্রান্ড ফাইনাল প্রতিযোগিতায় দুই বিভাগে উত্তীর্ণ ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অর্জনকারী ৬ জনকে আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আকর্ষনীয় পুরষ্কার ও সনদপত্র প্রদান করা হবে।

ফাউন্ডেশন সূত্রে জানা গেছে, চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জনকারী হাফেজ ও ক্বারীকে নগদ ৫০ হাজার টাকা হারে মোট ১ লাখ টাকা দেওয়া হবে। দ্বিতীয় স্থান অর্জনকারী দুই জনকে ৩০ হাজার হারে মোট ৬০ হাজার টাকা দেওয়া হবে এবং ৩য় স্থান অর্জনকারী দুই জনের প্রত্যেককে ২০ হাজার হারে মোট ৪০ হাজার টাকা দেওয়া হবে। চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায অংশগ্রহণকারী অবশিষ্ট ১৪ জনকে আকর্ষনীয় শান্ত্বনা পুরষ্কার দেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY