ফরমাইসি বিরোধী দল সংসদ কার্যকর করবে না : ইনু

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৮, ২০১৯

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ফরমাইসি বিরোধী দল গঠন সংসদকে কার্যকর করবেনা বরং সংসদ সদস্যদের স্বাধীন প্রাণবন্ত ভূমিকাই সংসদকে কার্যকর করবে।

শুক্রবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে দলের দুই দিনব্যাপী জাতীয় কমিটির সভায় শুরুতে প্রারম্ভিক ভাষণে তিনি একথা বলেন। দলীয় সভাপতি হাসানুল হক ইনুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জাসদ জাতীয় কমিটির সভায় এ পর্যন্ত দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি, কার্যকরী সভাপতি অ্যাডভোকেট রবিউল আলম, প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেন, মীর হোসাইন আখতার, আব্দুল হাই তালুকদার, অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান শওকত, ফজলুর রহমান বাবুল, নুরুল আখতার, নাদের চৌধুরী, সাখাওয়াত হোসেন রাঙ্গা, মজিবুল হক বকু, ওবায়দুর রহমান চুন্নু, নইমুল আহসান জুয়েল, শওকত রায়হান, রোকনুজ্জামান রোকন বক্তব্য রেখেছেন। সভা শুক্রবার রাত পর্যন্ত চলে এবং শনিবার সকাল ১০ টা পর্যন্ত মুলতবী করা হয়।

ইনু বলেন, নির্বাচন পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গঠিত সরকারের প্রতি জাসদের পক্ষ থেকে পূর্ণ সমর্থন জ্ঞাপন করে বলেছেন, এ সরকারের চ্যালেঞ্জ: শান্তি-উন্নয়-সমৃদ্ধির ধারা অব্যাহত রাখা, উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির সফল ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে ও বৈষম্যের অবসান করতে সংবিধানের নির্দেশ অনুযায়ী দেশের অর্থনীতি ঢেলে সাজিয়ে সমাজতন্ত্রমূখী করা, দুর্নীতির অবসান করে সুশাসন ও আইনের শাসন নিশ্চিত করা, স্থানীয় সরকার ব্যবস্থাকে স্বাধীন ও কার্যকর করাসহ রাষ্ট্র কাঠামোর অন্যায্যতা দূর করতে রাষ্ট্র-প্রশাসন ব্যবস্থায় গণতান্ত্রিক রূপান্তর করা, রাষ্ট্র-সংবিধান-শিক্ষা-সংস্কৃতি-সমাজ থেকে সাম্প্রদায়িকতার মুলোৎপাটনে ঘরে-বাইরে সংগ্রাম জোরদার করা। জনাব ইনু বলেন, নির্বাচন ও রাজনীতির মাঠে পরাজিত জামাত-বিএনপি-ঐক্যফ্রন্ট তথা পাকিস্তানপন্থীরা কোনো ফাঁক ফোকর দিয়ে পুনরুত্থানের কোনো সুযোগ যেন না যায় তার জন্য সরকার, ১৪ দল ও সকল দেশপ্রেমিক গণতান্ত্রিক শক্তিকে সতর্ক-সজাগ ও ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

ইনু বলেন, জামাত-বিএনপি-পাকিস্তানপন্থী রাজনীতি নির্বাচন ও রাজনীতির মাঠে পরাজিত হলেও তাদের পুনরুত্থান প্রতিরোধ এবং দেশকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় রাষ্ট্র-সমাজকে ঢেলে সাজাতে ১৪ দলীয় জোটসহ দেশপ্রেমিক গণতান্ত্রিক প্রগতিশীল রাজনৈতিক শক্তির কার্যকর রাজনৈতিক ঐক্যের প্রয়োজন ও অপরিহার্যতা বিদ্যমান রয়েছে।

 

ইনু বলেন, ১৪ দলের কোনো শরিক দলের ১৪ দল নিয়ে বিভ্রান্তি বা ভিন্ন বক্তব্য থাকলে সেই দলকেই তাদের অবস্থান সুনির্দিষ্টভাবে প্রকাশ করতে হবে। জাসদ ১৪ দলকে ১৪ দলের ঘোষিত ২৩ দফার ভিত্তিতে এগিয়ে নিতে বধ্য পরিকর।  ইনু বলেন, ১৪ দল ও মহাজোট নবম, দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন জোটগতভাবেই মোকাবেলা করে বিজয় অর্জন করেছে। জনগণ ১৪ দল ও মহাজোটকে সরকার গঠন ও দেশ পরিচালনায় নেতৃত্ব দেয়ার জন্য গণরায় দিয়েছে। সুতরাং ১৪ দলের বা মহাজোটের কোনো শরিক সংসদে সরকারের বিরুদ্ধে সংসদীয় অবস্থান বা রাজনৈতিক অবস্থান গ্রহণ করবে কী-না, সেটা সেই দলের নিজস্ব রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের বিষয়। জনাব ইনু বলেন, ফরমাইসি বিরোধী দল গঠন সংসদকে কার্যকর করবেনা বরং সংসদ সদস্যদের স্বাধীন প্রাণবন্ত ভূমিকাই সংসদকে কার্যকর করবে।

ইনু বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে জামাত-বিএনপি দেশ বিরোধী রাজনীতি প্রত্যাখ্যাত হয়েছে। তিনি বলেন, বিএনপি বগলে জামাতকে রেখে কখনই গণতন্ত্রের ময়ূর হতে পারবে না, গণতন্ত্রের চ্যাম্পিয়ন হতে পারবে না, বরং জঙ্গিবাদ-সাম্প্রদায়িকতার ভাগারের কাকই থাকবে।

জনাব ইনু আজ শুক্রবার সকাল ১১ টায় নগরীর শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে দলের দুই দিন ব্যাপী জাতীয় কমিটির সভায় শুরুতে প্রারম্ভিব ভাষণে এ বক্তব্য রাখেন।

দলীয় সভাপতি হাসানুল হক ইনুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জাসদ জাতীয় কমিটির সভায় এ পর্যন্ত দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি, কার্যকরী সভাপতি এড. রবিউল আলম, প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেন, মীর হোসাইন আখতার, আব্দুল হাই তালুকদার, এড. হাবিবুর রহমান শওকত, ফজলুর রহমান বাবুল, নুরুল আখতার, নাদের চৌধুরী, সাখঅওয়াত হোসেন রাঙ্গা, মজিবুল হক বকু, ওবায়দুর রহমান চুন্নু, নইমুল আহসান জুয়েল, শওকত রায়হান, রোকনুজ্জামান রোকন বক্তব্য রেখেছেন। সভা আজ রাত ৮ টা পর্যন্ত চলে আগামীকাল সকাল ১০ টা পর্যন্ত মুলতবী করা হবে। আগামীকাল সকাল ১০ টায় সভা শুরু হয়ে রাত ৮ টায় শেষ হবে।