বানারীপাড়ায় শিয়ালকাঠি-বিশারকান্দি সড়ক নির্মাণ কাজে অনিয়মের অভিযোগে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ

আপডেট: জানুয়ারি ১৪, ২০২০
0

রাহাদ সুমন,বিশেষ প্রতিনিধি॥
বানারীপাড়ায় প্রায় ৫৬ কোটি টাকা ব্যায়ে সড়ক ও জনপথের (সওজ) শিয়ালকাঠি-উদয়কাঠি-বিশারকান্দি সড়ক নির্মাণ কাজ নিম্নমানের হওয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ প্রদর্শণ করে কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন এলাকাবাসী।উপজেলার সন্ধ্যা নদীর পশ্চিমপাড়ে বাইশারী ইউনিয়নের শিয়ালকাঠি থেকে উদয়কাঠি ইউনিয়ন হয়ে বিশারকান্দি ইউনিয়নের চৌমোহনা বাজার পর্যন্ত সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের (সওজ) প্রায় ৫৬ কোটি টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে সড়ক ও ব্রিজ-কালভার্ট নির্মাণ কাজ দু’ভাগে চলমাণ রয়েছে।শিয়ালকাঠি থেকে উদয়কাঠির বখ্শ বাড়ি পর্যন্ত অংশের ২২ কোটি টাকার কাজ পেয়েছে মেসার্স অহিদ কন্সট্রাকশন।ওই স্থান থেকে বিশারকান্দি চৌমোহনা বাজার পর্যন্ত অপর অংশের প্রায় ৩৪ কোটি টাকার কাজ পায় মেসার্স এমএম বিল্ডার্স।শুরু থেকেই কচ্ছপ গতিতে চলমান এ নির্মাণ কাজ নিয়ে নানা অনিয়মের অভিযোগ করে আসছিলেন এলাকাবাসী।মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে বাইশারী ইউনিয়নের গরদ্দার এলাকায় ময়লা আবর্জনার মধ্যে সড়কে কার্পেটিংয়ের কাজ শুরু করা হলে এর প্রতিবাদে স্থানীয় ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক জিয়াউদ্দিন জুয়েল ফকির ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা জাকির হোসেন মোল্লার নেতৃত্বে এলাকাবাসী বিক্ষোভ প্রদর্শণ করে কাজ বন্ধ করে দেন। এসময় বিষয়টি তারা স্থানীয় সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. শাহে আলমকে মুঠোফোনে জানালে তিনি তাৎক্ষনিক সড়ক ও জনপথের বরিশালের নির্বাহী প্রকৌশলী মাসুদ খানকে অবহিত করে বিষয়টি দেখার জন্য বলেন।এলাকাবাসীর অভিযোগ কম্প্রেসার মেশিন (হাওয়া যন্ত্র) দিয়ে রাস্তা পরিস্কার না করে ময়লা আবর্জনার মধ্যে কার্পেটিং করা,নিম্নমানের মেগাডাম ও পাথর ব্যবহার,এ্যাজিন পর্যন্ত ঢালাই না দেওয়া, সিলেটস্যান্ট বালুর বদলে ডাস্ট ব্যবহার করা ও বিটুমিন কম দেওয়া সহ নানা অনিয়মের মধ্যে ওই সড়কের কাজ করছেন ঠিকাদাররা। সওজ’র বরিশালের উপ-সহকারী প্রকৌশলী জুয়েল হোসেন ও কার্যসহকারী জাহাঙ্গির হোসেনের উপস্থিতিতেই মেসার্স অহিদ কন্সট্রাকশনের ম্যানেজার ইসতিয়াক আহম্মেদ মিঠু এ কার্পেটিংয়ের কাজ করছিলেন।এলাকাবাসীর বিক্ষোভের মুখে এসময় উপ-সহকারী প্রকৌশলী জুয়েল হোসেন সটকে পড়েন এবং কার্য সহকারী জাহাঙ্গির হোসেন ও ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার ইসতিয়াক আহম্মেদ মিঠু তোপের মুখে পড়েন। এ বিষয়ে বরিশাল সওজ’র কার্য সহকারী জাহাঙ্গির হোসেন রাস্তা পরিস্কার না করে কার্পেটিংয়ের কাজ করার কথা স্বীকার করলেও দরপত্র অনুযায়ী কাজ করা হচ্ছে বলে ঠিকাদারদের পক্ষে সাফাই গান।এ প্রসঙ্গে স্থানীয় সংসদ সদস্য মো. শাহে আলম জানান দরপত্র অনুযায়ী স্বচ্ছতার ভিত্তিতে উন্নতমানের টেকসই কাজ করতে হবে।###

রাহাদ সুমন,বানারীপাড়া
তারিখ.১৪-০১-২০২০ইং

LEAVE A REPLY