বাড়িতে ভাঙাচোরা বা বাতিল ইলেকট্রনিক্স জিনিস থেকে হতে পারে মারাত্মক ক্ষতি

আপডেট: এপ্রিল ১৮, ২০১৯
0

আমরা অনেকেই বাস্তুদোষ কাটাতে কত কী না করে থাকি। কী করে বাস্তুদোষ কাটানো যাবে, বা কী ভাবে বাস্তুসংরক্ষণ করা যাবে তার নানা উপায় খুঁজে বেড়াই।

কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় আমাদের কিছু ভুলের জন্য বাস্তুদোষ তৈরি হচ্ছে। আমরাই নিজেদের অজান্তে ঘরের কোণে এমন কিছু জিনিস রেখে দিই, যা থেকে বাস্তুদোষ প্রভাবিত হয়।

বাতিল বা ভাঙাচোরা ইলেকট্রনিক্সের জিনিসও অনেক সময় বাস্তুদোষের কারণ হতে পারে। দেখে নেওয়া যাক ইলেকট্রনিক্স এমন কোন কোন জিনিস থেকে আমাদের বাস্তু দোষের কবলে পরতে পারে।

১) রান্নাঘরের জিনিসপত্র– রান্নাঘরে খারাপ হয়ে যাওয়া মিক্সার, জুসার, টোস্টার থেকে শুরু করে যাবতীয় ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী যদি খারাপ হয়ে যায়, তা হলে তার থেকে বাস্তুদোষ সৃষ্টি হয় এবং এর থেকে বাড়িতে নেগেটিভ এনার্জি ঢুকতে থাকে।

২) গোটা বাড়ির অন্যান্য ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী যেমন খারাপ হওয়া কম্পিউটার, ল্যাপটপ, মোবাইল, পুরনো টেপ রেকর্ডার ইত্যাদি থেকে নেগেটিভ এনার্জি বের হতে থাকে। তাই যখনই কোনও ইলেকট্রনিক্স বস্তু খারাপ হয়ে যায়,

সেই জিনিসটাকে খুব শীঘ্র মেরামত করার ব্যবস্থা করতে হয়। বেশি দিন বাতিল জিনিস বাড়িতে পড়ে থাকলে বাস্তুদোষ গভীর ভাবে চেপে ধরে।

৩) আবর্জনা– বাড়িতে নোংরা, ঝুল বা খুব বেশি আবর্জনা জমতে দেওয়া একদম উচিত নয়। এর থেকেও বাস্তুদোষ সৃষ্টি হয়।
বিশেষ করে কোনও ইলেকট্রনিক্স জিনিসের ওপর ঝুল বা ধুলো ময়লা পড়তে দেওয়া বাস্তু দোষের কারণ হতে পারে।

৪) অন্যান্য সামগ্রী– বাড়িতে শুধু ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী নয়, খারাপ হয়ে যাওয়া টর্চ, যে কোনও চার্জার এ সব জিনিস থেকেও হতে পারে বাস্তুদোষ।

৫) নষ্ট হয়ে যাওয়া লাইট বা ফ্যান থেকেও বাস্তুদোষ হতে পারে।

LEAVE A REPLY