বিচারক এলেন, বিদ্যুৎ গেলো

আপডেট: অক্টোবর ১০, ২০১৮

একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় ঘোষণার জন্য রাজধানীর নাজিমউদ্দিন রোডে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের পাশে স্থাপিত বিশেষ আদালতে ঢাকার ১ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিন বুধবার বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে এজলাসে প্রবেশ করেন।

কিন্তু তিনি প্রবেশ করতেই বিদ্যুৎ চলে যায় এজলাসের।

এর আগে বিচারক আদালত প্রাঙ্গণে উপস্থিত হয়ে প্রথমে এজলাসে উপস্থিত না হয়ে নিজ কক্ষে অবস্থান করছিলেন। সাড়ে ১১টার দিকে আসামিদের এজলাসে তোলার পর তার প্রবেশের কথা। এরপর তিনি একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলার রায় পড়া শুরু করবেন, এমনটাই কথা ছিল।

আসামিদের মধ্যে বেলা ১১টা ১৮ মিনিটে সবার আগে আদালতের এজলাসে প্রবেশ করেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর।

এরপর একে একে অন্য আসামিদের প্রবেশ করানো হয়।

রায় উপলক্ষে লুৎফুজ্জামান বাবর ও সাবেক উপমন্ত্রী আব্দুস সালাম পিন্টুকে একটি মাইক্রোবাসে করে আনা হয়।

বাকি আসামিদের প্রিজন ভ্যানে করে আনা হয়েছে।

এর অাগে আদালত প্রাঙ্গণে আনা হয় ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার আসামিদের।

গাজীপুরের হাই সিকিউরিটি কারাগার এবং কাশিমপুর ১ ও ২ নং কারাগার থেকে রাজধানীর নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে আনা হয় তাদের।