ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন সফল করার আহবান ডিএনসিসির

আপডেট: জানুয়ারি ৯, ২০২০
0

ঢাকা, ৯ জানুয়ারিঃ আগামী ১১ জানুয়ারি শনিবার অনুষ্ঠেয় জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন সফল করার আহবান জানান ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আবদুল হাই। এ জন্য তিনি গণমাধ্যম কর্মীদের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেন। আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় ডিএনসিসি নগর ভবনে অনুষ্ঠিত এক সাংবাদিক ওরিয়েন্টেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহবান জানান। তিনি বলেন, আগামী শনিবার সারাদেশে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন পালিত হবে। এই কার্যক্রমে ডিএনসিসি এলাকায় ৬ মাস থেকে ১১ মাস বয়সী শিশুদের একটি নীল রংয়ের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল এবং ১২ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী সকল শিশুকে একটি লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল বিনামূল্যে খাওয়ানো হবে। গণমাধ্যমকর্মীগণ ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে এ ক্যাম্পেইনকে সফল করতে সহযোগিতা করতে পারেন।
ডিএনসিসির আওতাধীন ১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে ৩৬ নম্বর ওয়ার্ডে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ডিএনসিসি কর্তৃক এবং ৩৭ নম্বর ওয়ার্ড থেকে ৫৪ নম্বর ওয়ার্ডে ঢাকা সিভিল সার্জন অফিস কর্তৃক বাস্তবায়িত হবে। আগামী ১১ জানুয়ারি শনিবার সকাল ১০টায় মিরপুর-১ এর মাজার রোড সংলগ্ন নেকিবাড়িরটেক নগর মাতৃসদন থেকে ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডিএনসিসির ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করবেন।
ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোমিনুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সাংবাদিক ওরিয়েন্টেশনে শিশুদেরকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর উপর একটি পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন করেন উপ-প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা লে.কর্নেল মোস্তফা সারওয়ার। তাঁর উপস্থাপনাটির গুরুত্বপূর্ণ অংশ নিম্নরূপঃ
“শিশুর সুস্থভাবে বেঁচে থাকা, স্বাভাবিক বৃদ্ধি ও দৃষ্টি শক্তির জন্য ভিটামিন ‘এ’ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এক অনুপুষ্টি। ভিটামিন ‘এ’ চোখের স্বাভাবিক দৃষ্টি শক্তি ও শরীরের স্বাভাবিক বৃদ্ধি বজায় রাখে এবং বিভিন্ন রোগের বিরুদ্ধে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করে থাকে। ভিটামিন ‘এ’ এর অভাবে রাত কানা সহ চোখের অন্যান্য রোগ, শরীরের স্বাভাবিক বৃদ্ধি ব্যাহত হওয়া, রক্ত শূণ্যতা এমনকি শিশুর মৃত্যুও হতে পারে। বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য নীতিমালা অনুযায়ী, বছরে ০২ বার ভিটামিন ‘এ’ এর অভাব পূরণে সম্পুরক খাদ্য হিসেবে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। এ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৫টি অঞ্চলের আওতাধীন ৩৬টি ওয়ার্ডে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ১১ জানুয়ারি ২০২০ পরিচালনা করা হবে। উক্ত ক্যাম্পেইন সুষ্ঠুভাবে সম্পাদানের লক্ষ্যে এ কার্যক্রমের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে ইতোমধ্যে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।
এক নজরে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এলাকায় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে ১১ জানুয়ারি ২০২০ এর কার্যক্রমঃ
০৬ মাস থেকে ১১ মাস বয়সের শিশুর লক্ষ্যমাত্রা-২০২০ ৯০,৬২৬ টি; ২২ জুন ২০১৯ এর অর্জন ৭৭,৮৪৯ (১০১.২৯%)
১২ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সের শিশুর লক্ষ্যমাত্রা-২০২০ ৪,৮৯,৫৬৪ টি; ২২ জুন ২০১৯ এর অর্জন ৩,৯৯,০৬৮ (৯৩.৯৮%)
মোট কেন্দ্র- ১,৪৯৯ টি; মোট স্থায়ী কেন্দ্র- ৪৯টি; মোট অস্থায়ী কেন্দ্র- ১৪৫০টি; মোট স্বাস্থ্য কর্মী/স্বেচ্ছাসেবী- ২৯৯৮ জন
প্রথম সারির সুপারভাইজার- ১৮৩ জন; দ্বিতীয় সারির সুপারভাইজার- ১০৩ জন; তদারককারী (কেন্দ্রীয়)- ১০ জন
মোট লক্ষ্যমাত্রা ৫,৮০,১৯০ জন শিশু।
সার্বিক কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে তদাররিক জন্য কেন্দ্রীয় ও আঞ্চলিক পর্যায়ে ভিজিলেন্স টিম নিয়োজিত থাকবেন। এ কার্যক্রমের সফল বাস্তবায়নের জন্য আপনাদের সকলের সার্বিক সহযোগিতা একান্তভাবে কাম্য”।

LEAVE A REPLY