মুক্তিযোদ্ধা- প্রতিবন্ধী ভাতা ও ভাতাভোগীর সংখ্যা বেড়েছে

আপডেট: জুন ১৩, ২০১৯
0

প্রস্তাবিত নতুন অর্থবছরের বাজেটে (২০১৯-২০) প্রতিবন্ধী ভাতাভোগীর সংখ্যা ও বরাদ্দ বেড়েছে। চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ১০ লাখ উপকারভোগী প্রতিমাসে ৭০০ টাকা হারে এ ভাতা পাচ্ছেন। এ খাতে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ৮৪০ কোটি টাকা।

অপরদিকে, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে মুক্তিযোদ্ধাদের মাসিক ভাতা দুই হাজার টাকা বাড়ানো প্রস্তাব করা হয়েছে।
অর্থমন্ত্রী বলেন, আগে মুক্তিযোদ্ধাদের মাসিক ভাতা ছিল ১০ হাজার টাকা। এখন দুই হাজার টাকা বৃদ্ধি করে ১২ হাজার টাকায় উন্নীত করা হয়েছে।

এবারের প্রস্তাবিত বাজেটে সুরক্ষা খাতে ৭৪ হাজার ৩৬৭ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। যা মোট বাজেটের ১৪ দশমিক ২১ শতাংশ।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের তথ্যানুসারে, দেশে বর্তমানে গেজেটভুক্ত মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা ২ লাখ ৩৪ হাজার ৩৭৮। ভাতা পাচ্ছেন ১ লাখ ৮৭ হাজার ৯৮২ জন। সাধারণ মুক্তিযোদ্ধাদের পাশাপাশি যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, মৃত ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার পরিবার, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা ও বীরশ্রেষ্ঠদের পরিবারের সদস্যরাও মাসিক ভাতা পাচ্ছেন।

নতুন (২০১৯-২০) অর্থবছরে এ খাতে বরাদ্দ বাড়িয়ে রাখা হচ্ছে ১ হাজার ৯০ কোটি টাকা। ভাতাভোগীর সংখ্যাও ১০ লাখ থেকে বাড়িয়ে ১৫ লাখ ৫৪ হাজারে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। একই সঙ্গে ভাতার হার প্রতিমাসে ৭০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৭৫০ টাকা নির্ধারণ করা হচ্ছে।

এছাড়া প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা উপবৃত্তি কার্যক্রম বাড়ানো হচ্ছে। আগামী বাজেটে এ কার্যক্রমে ভাতাভোগীর সংখ্যা ও বরাদ্দ বাড়ছে। চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ৯০ হাজার উপকারভোগী বিভিন্ন স্তরে শিক্ষার্থী বিভিন্ন হারে এ ভাতা পাচ্ছেন। এ খাতে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ৮০ কোটি ৩৭ লাখ টাকা।

আগামী ২০১৯-২০ অর্থবছরে এ খাতে বরাদ্দ বাড়িয়ে রাখা হচ্ছে ৯৫ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। ভাতাভোগীর সংখ্যাও ৯০ থেকে বাড়িয়ে ১ লাখে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY