মুসলিমদের সংকট উত্তরণে প্রিয় নবী (সঃ)-র আদর্শের খাঁটি অনুসারী হতে হবে…. ছারছীনার পীর শাহ মোহাম্মদ মোহেববুল্লাহ

আপডেট: ডিসেম্বর ১, ২০১৯
0

রাহাদ সুমন,বানারীপাড়া(বরিশাল)প্রতিনিধি:
লাখো মুসল্লীর চোখের পানি ও আমিন আমিন ধ্বনির মধ্য দিয়ে আখেরী মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হল তিন দিন ব্যাপি ইসলাম প্রচারের সূতিকাগার পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলার ঐতিহ্যবাহী ছারছীনা দরবার শরীফের ১২৯ তম বার্ষিক ঈসালে ছওয়াব মাহফিল ও হিযবুল্লাহ সম্মেলন। রোববার বাদ জোহর মোনাজাতের পূর্বে ছারছীনা দরবার শরীফের আ’লা হযরত পীর ছাহেব আলহাজ্জ মাওলানা শাহ মোহাম্মদ মোহেব্বুল্লাহ (মা.জি.আ.) বলেছেন

– মুসলমান শ্রেষ্ঠ জাতি,সর্বোত্তম জাতি। কিন্তু অতীব দু:খের বিষয় বিশ্বের দিকে দিকে আজ মুসলিম উম্মাহ নির্যাতিত,নিপীড়িত ও নিষ্পেষিত। অমুসলিমদের কুটকৌশলে তারা মার খাচ্ছে। এর মূল কারণ কুরআন ও সুন্নাহর পথ থেকে দূরে সরে যাওয়া। নেক আমল বাদ দিয়ে মনগড়া মতবাদের আলোকে জীবন পরিচালনা করা। প্রিয় নবীর আদর্শের অনুসারী না হয়ে বিজাতীয় কৃষ্টি-কালচারের অনুসরণ করা। পীর ছাহেব কেবলা আরও বলেন, দরবার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে একই আদর্শ ও একই নিয়মে পরিচালিত হয়ে আসছে। এ দরবার আদর্শ ও আকীদার বেলায় কারো সাথে কখনও আপোষ করেনি এবং ভবিষ্যতেও করবেনা ইনশাআল্লাহ। তিনি বলেন আকীদা হলো ঈমানের মালা, যার আকীদা ভালো, স্বচ্ছ ও সুন্দর সে অল্প আমলেই নাজাত পাবে।

আর যার আকীদা মন্দ সে যত বেশি আমলই করুকনা কেন পরকালে তার মুক্তি মিলবেনা। আমাদের আকীদা তথা বিশ্বাস হলো প্রিয় নবী (স:) হায়াতুন্নবী, তিনি শাফায়াতকারী, নবী আমাদের মত মানুষ নন তিঁনি মহামানব। আমরা মাযহাবে হানাফী ইত্যাদি। এসব বিষয় মনে রেখে আমাদের জীবন পরিচালনা করতে হবে। পীর ছাহেব মাহফিলে আগত লাখো ধর্ম প্রাণ মুসল্লীর উদ্দেশ্যে বলেন, সকলকে নেককার ও আল্লাহওয়ালা খাঁটি মুসলমান হিসেবে গড়ে তুলতে হলে দীনিয়ার শিক্ষায় শিক্ষিত করুন এবং গ্রামে গ্রামে দীনিয়া মাদরাসা কায়েম করুন। এছাড়াও ইসলামের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াবলীর উপর আলোচনা করেন মাওলানা মোঃ রুহুল আমিন আফসারী,মাওলানা মুহাম্মদ ওসমান গণি ছালেহী, মাওলানা মোঃ বোরহান উদ্দিন ছালেহী, মাওলানা মুহাম্মদ মুহিব্বুল্লাহ আল মাহমুদ প্রমুখ। সবশেষে হযরত পীর ছাহেব কেবলা আলহাজ্ব শাহ্ মোহাম্মদ মোহেববুল্লাহ (মাঃ জিঃ আঃ) দেশ-জাতি ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর সুখ শান্তি কামনা করে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন। এািদকে মাহফিলের দ্বিতীয় দিন শনিবার বাদ এশা অরাজনৈতিক দ্বিনী সংগঠন বাংলাদেশ

জমইয়াতে হিযবুল্লাহর মজলিশে শুরার অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। শুরা অধিবেশনে বাংলাদেশে ব্লাসফেমী আইন পাশ এবং স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে পৃথক শিক্ষাব্যবস্থা প্রবর্তনের দাবী জানানো হয়।ওই সময় মাহফিলে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-বরিশাল-২ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মোঃ শাহে আলম,বরিশালের ডিআইজি মোঃ শফিকুল ইসলাম বিপিএম পিপিএম(বার),ডিজিএফআই’র বরিশালের বিভাগীয় প্রধান কর্নেল মোঃ বাকের,বাংলাদেশ জমইয়াতে হিযবুল্লাহর সিনিয়র নায়েবে আমীর পীরজাদা আলহাজ্ব মাওলানা শাহ্ আবু নছর নেছারুদ্দীন আহমদ হুসাইন,নায়েবে আমীর আলহাজ্ব মাওলানা মীর্জা মো.নূরুর রহমান বেগ বানারীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট মাহমুদ হোসেন মাখন,স্বরূপকাঠি পৌরসভার মেয়র মো. গোলাম কবির,বাংলাদেশ জমইয়াতে হিযবুল্লাহর বানারীপাড়া উপজেলা শাখার সভাপতি আলহাজ্ব তোফাজ্জেল হোসেন তালুকদার,বানারীপাড়া প্রেসক্লাব সভাপতি রাহাদ সুমন,সাধারন সম্পাদক সুজন মোল্লা,যুগ্ম সম্পাদক সজল চৌধুরী প্রমূখ।###
।###

LEAVE A REPLY