শ্রীপুরে পুকুরে খুঁটির সঙ্গে হাত-পা বাঁধা নিখোঁজ নারী শ্রমিকের বিবস্ত্র লাশ উদ্ধার

আপডেট: জুন ২৭, ২০১৯
0
ক্যাপশনঃ গাজীপুরের শ্রীপুরে পুকুর থেকে উদ্ধারকৃত খুঁটির সঙ্গে হাত-পা বাঁধা নারী শ্রমিকের লাশ।

গাজীপুর সংবাদদাতাম গাজীপুরের শ্রীপুরে নিখোঁজের একদিন পর বৃহষ্পতিবার রড সিমেন্টের পাকা খুঁটির সঙ্গে হাত-পা ও কোমর বাঁধা গার্মেন্টস কর্মী এক নারীর বিবস্ত্র লাশ পুকুর থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতের নাম সাবিনা আক্তার (২২)। সে ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলার জোঁকা গ্রামের লাল মিয়ার মেয়ে।

শ্রীপুর থানার এসআই জাহাঙ্গীর আলম জানান, গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার রাজাবাড়ী বাজার এলাকার অগ্রণী ব্যাংকের পেছনের একটি পুকুরে বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টার দিকে বিবস্ত্র এক নারীর লাশ ভাসতে দেখে এলাকাবাসী। খবর পেয়ে পুলিশ বিকেলে ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। সে একদিন আগে মঙ্গলবার রাতে বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। নিহত ওই নারীর পরনে শুধুমাত্র কামিজ ছিল। গলায় ওড়না পেঁচানো নিহতের স্যালোয়ার দিয়ে তার হাত-পা ও কোমর ওই পুকুরের একটি সিমেন্টের পাকা খুঁটির সঙ্গে পানিতে বাঁধা ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, গলায় ওড়না পেঁচিয়ে শ্বাস রোধে তাকে হত্যা করে ঘাতকরা। পরে পুকুরের পানিতে যাতে ভেসে না উঠে সেজন্য লাশটিকে ওই খুঁটির সঙ্গে বেঁধে পানিতে ডুবিয়ে রেখে পালিয়ে যায় তারা।

নিহতের খালা ছোলেমা বেগম ও স্থানীয়রা জানান, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের একটি পোশাক কারখানায় শ্রমিক পদে চাকুরি করতো সাবিনা আক্তার। সেখানে পরিচয়ের সূত্রধরে ভালবেসে প্রায় তিনবছর আগে স্থানীয় তেলীপাড়া এলাকার আকতার হোসেনের ছেলে নাহিদের সঙ্গে বিয়ে হয় তার। নাহিদের পরিবার এ বিয়ে মেনে না নেওয়ায় এ দম্পতি সূর্য নারায়নপুর গ্রামের কামাল হোসেনের বাড়িতে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস শুরু করে। সাবিনা পূর্বের চাকুরি ছেড়ে শ্রীপুর উপজেলার ধলাদিয়া গ্রামের শারমিন টেক্সটাইল লিমিটেড কারখানায় শ্রমিক পদে চাকুরি নেয়। বিবাহিত জীবনে তাদের দেড় বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে।

নিহতের খালা আরও জানান, মঙ্গলবার রাত ১১ টার দিকে এক যুবকের সঙ্গে মোটরসাইকেলে চড়ে এক যুবকের সঙ্গে বাসা থেকে বের হয়। এরপর থেকে সে নিখোঁজ হয়। বিভিন্নস্থানে খোঁজ করেও তার কোন সন্ধান মিলেনি। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে বৃহষ্পতিবার তার লাশ পাওয়া যায়। ওই যুবকটির সঙ্গে সাবিনা প্রায়শঃ কথা বলতো।

শ্রীপুর থানার ওসি লিয়াকত আলী জানান, ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তবে এ ঘটনায় জড়িত কাউকে এখন পর্যন্ত আটক করা সম্ভব হয়নি।

LEAVE A REPLY