সৌদি সহায়তা চাই না

আপডেট: এপ্রিল ২৩, ২০১৯
0
ছবি সংগৃহীত

ডেস্ক রিপোর্ট:
সুদানে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রভাব বিস্তারের চেষ্টায় উদ্বিগ্ন বিক্ষোভকারীরা দেশ দু’টির সহায়তার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে। তারা দেশ দু’টিকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, ‘রাখুন আপনাদের টাকা নিজেদের কাছে রাখুন’। রিয়াদ এবং আবুধাবি খার্তুমকে ৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সাহায্য পাঠানোর প্রস্তাব দেয়ার একদিন পর এই আহ্বান জানানো হলো।

তেলসমৃদ্ধ উপসাগরীয় অঞ্চলের দেশ দু’টির রোববারের সাহায্যের ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা পর সুদানের সামরিক সদর দফতরের বাইরে অবস্থানরত বিক্ষোভকারীরা চিৎকার করে বলেছিলেন, ‘আমরা সৌদির সহায়তা চাই না’। সোমবার আলজাজিরাকে ব্যবসায়ী আদিল গ্যাসেম আলসীদ বলেন, ‘তারা সুদানকে নিয়ন্ত্রণ ও তদবিরের জন্য অর্থ ব্যবহার করছে। নিজেদের দেখভাল এবং স্বার্থ সুরক্ষার জন্য পর্যাপ্ত সম্পদ আমাদের রয়েছে।’ জ্বালানির জন্য পাঠানো হবে।

ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রতিশ্রুতি
এদিকে সুদানের প্রেসিডেন্ট ওমর আল-বশিরকে ক্ষমতাচ্যুত করার পর থেকে দেশ পরিচালনাকারী অন্তর্বর্তীকালীন সামরিক পরিষদ একটি বেসামরিক কর্তৃপক্ষের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। দেশটির অন্তর্বর্তীকালীন নেতা এ কথা জানিয়েছেন। কিন্তু বিরোধীদলীয় নেতারা রোববার বলেন, তারা সামরিক শাসকদের সাথে কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছেন কারণ উত্তর আফ্রিকার দেশটিতে ক্ষমতা হস্তান্তর করার সামরিক পরিষদের প্রতিশ্রুতিতে বিশ্বাস করতে পারছেন না তারা।

লেফটেন্যান্ট জেনারেল আবদুল ফাত্তাহ আল-বুরহান রোববার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে বলেন, ‘অন্তর্বর্তীকালীন সামরিক পরিষদ অভ্যুত্থান ও বিপ্লবের পরিপূরক। পরিষদ জনগণের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমরা বেশি সময় ক্ষমতায় থাকার জন্য লোভী নই। বিরোধীদলগুলোর সাথে আমরাও একমত। বিরোধীদলগুলোর প্রস্তাবনা পাওয়ার জন্য আমরা অপেক্ষা করছি।’

LEAVE A REPLY