৩০০ ফেসবুক পেজ চালাচ্ছে বিএনপি-জামায়াত : তারানা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৮

দেশবাসীকে ফেসবুক ও অলাইনের গুজব থেকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, দেশকে অস্থিতিশীল করতে এবং জাতীয় নির্বাচনের প্রাক্কালে বিএনপি জামায়াত দেশের বাইরে থেকে তিনশ ফেসবুক পেইজ পরিচালিত করে বিভিন্ন ধরণের গুজব ছড়াচ্ছে। তারা এই সব ফেইসবুক পেইজের মাধ্যমে মিথ্যা তথ্য এবং অসত্য কিছু তথ্য প্রকাশ করে দেশবাসীকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে।
আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে চাঁদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য সামসুল হক ভূইয়ার এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান তিনি। এরআগে বিকাল সোয়া ৫টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়।
ফেসবুকে গুজব মনিটর করার জন্য তথ্যমন্ত্রণালয় থেকে গুজব সনাক্তকরণ ও প্রতিরোধ সেল তৈরি করা হয়েছে, সেপ্টেম্বরের শেষেই এর কার্যক্রম শুরু হয়ে যাবে বলে জানান তথ্য প্রতিমন্ত্রী।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, সকলেই জানে যে বিএনপি জামাত এদের অর্থের কোনো অভাব নেই। সেকারণে এরা প্রচুর অর্থ খরচ করে মিথ্যা এসব গুজব ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে ও কিছু কিছু অনলাইনের মাধ্যমে ছড়াচ্ছে। মনিটরিং সেল চব্বিশ ঘণ্টা নজর রাখবে কোন কোন তথ্য- গুজব। কারণ গুজব যখন রটনা হয় তা কিন্তু অপরাধের পর্যায়ে পরে। তিনটি বিভাগে এই গুজব শনাক্তকরণ ও প্রতিরোধ সেল কাজ করবে। যাতে তরুণ প্রজন্ম নিযুক্ত থাকবে। তিন ঘণ্টার মধ্যে এসব তরুণরা গুজব চিহ্নিত করে তা বিভিন্ন টিভি চ্যানেল ও সংবাদপত্র ও রেডিওকে তারা জানিয়ে দেবে যে এই এই সংসদ গুজব।

চাঁদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য সামসুল হক ভূইয়ার অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধে ইচ্ছাকৃতভাবে যদি কোনো সাংবাদিক হলুদ সাংবাদিকতা করেন বা মিথ্যা ও উদ্দেশ্যমূলক তথ্য প্রকাশ করেন। তাহলে তার বিরুদ্ধে প্রেস কাউন্সিলে অভিযোগ জানানো যাবে। এছাড়া আদালতে ৫৭ ধারায় মামলাও করার ‍সুযোগ রয়েছে।
ময়মনসিংহ-৯ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আবেদীনের এক প্রশ্নের জবাবে তারানা হালিম বলেন, বাংলাদেশ বেতার পরিচালিত সরকারি বেতার কেন্দ্র ১২টি, বেসরকারি বাণিজ্যিক এফএম বেতার কেন্দ্র ২২টি এবং ১৭টি কমিউনিটি রেডিও রয়েছে। ঢাকা, রাজশাহী, রংপুর, ঠাকুরগাঁও, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, বান্দরবান, রাঙ্গামাটি, কুমিল্লা, খুলনা ও সিলেটে একটি করে মোট ১২টি সরকারি বেতার কেন্দ্র রয়েছে।