৪০তম বিসিএসে কোটা থাকবে না:পিএসসি

আপডেট: অক্টোবর ৫, ২০১৮

সরকারি চাকরিতে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণীর পদে কোটা পদ্ধতি বাতিলের পর সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক জানিয়েছেন, কোটা বিষয়ে সরকারের সর্বশেষ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। ৪০তম বিসিএসে কোটা পদ্ধতি রাখা হবে না।

মন্ত্রিসভায় কোটা পদ্ধতি বাতিলের পর বৃহস্পতিবার (০৪ অক্টোবর) পরিপত্র জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।পিএসসি চেয়ারম্যান বলেন, কোটা নিয়ে সরকারের সর্বশেষ সিদ্ধান্ত অনুসরণ করা হবে। ৪০তম বিসিএসে কোটা পদ্ধতি থাকবে না। তবে ৩৯তম বিসিএসে কোটা পদ্ধতি অনুসরণ করা হবে বলে জানান তিনি।

এক হাজার ৯০৩টি পদে প্রথম শ্রেণীর ক্যাডার নিয়োগ দিতে গত ১১ সেপ্টেম্বর ৪০তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি। কোটা সংস্কারের আন্দোলনের মধ্যে প্রকাশ হওয়া ওই বিজ্ঞপ্তিতে কোটা নিয়ে সরকারের সর্বশেষ সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নিয়োগের কথা বলা হয়েছে বলে জানান মোহাম্মদ সাদিক।

তবে কোটা তুলে দেওয়ার পর বিষয়টি নিয়ে আবেদনকারীদের মধ্যে বিভ্রান্তি ছিল।৪০তম বিসিএসের মাধ্যমে প্রশাসন ক্যাডারে ২০০ জন, পুলিশে ৭২ জনসহ সাধারণ ক্যাডারে ৪৬৫ জন এবং অন্যান্য ক্যাডার মিলিয়ে মোট এক হাজার ৯০৩ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে অনলাইনে আবেদনপত্র গ্রহণ শুরু হয়ে চাকরিপ্রার্থীরা আগামী ১৫ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত আবেদনপত্র জমা দিতে পারবেন।বৃহস্পতিবার ৪০তম বিসিএস পরীক্ষার অনলাইন আবেদনপত্র পূরণের ক্ষেত্রে কারিগরি বিষয়ে সহায়তা ও পরামর্শ দিতে হেল্পলাইন চালু করেছে পিএসসি।

প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা এবং দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ০১৫৫৫-৫৫৫১৪৯, ০১৫৫৫-৫৫৫১৫০, ০১৫৫৫-৫৫৫১৫১ এবং ০১৫৫৫-৫৫৫১৫২ নম্বরে ফোন করে আবেদনকারীরা এ সংক্রান্ত সহায়তা নিতে পারবেন।