হুয়াওয়েতে আপাতত স্বস্তির নিশ্বাস

আপডেট: মে ৩০, ২০১৯
0

হুয়াওয়ে আপাতত কিছুটা স্বস্তির নিশ্বাস ফেলতে পারে। যারা হুয়াওয়েকে ছেড়ে গিয়েছিল তারা আবার নীরবে হুয়াওয়ের পাশে ফিরতে শুরু করেছে। বিভিন্ন কোম্পানির তিনটি ভিন্ন নেটওয়ার্কে আবারও যুক্ত হয়েছে চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানটি। ওই তিনটি নেটওয়ার্ক ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ও মাইক্রো এসডি কার্ড নিয়ে কাজ করে।

ওয়াই-ফাই অ্যালায়েন্স, ব্লুটুথ এসআইজি ও এসডি অ্যাসোসিয়েশন নীরবেই হুয়াওয়ের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে। তারা হুয়াওয়ের সদস্যপদ নবায়ন করেছে। স্মার্টফোন ব্র্যান্ডের জন্য এ তিনটি নেটওয়ার্ককে গুরুত্বপূর্ণ মনে করা হয়। কারণ, তারা ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ও মাইক্রোএসডি কার্ড ব্যবহারের বৈধতা দেয়।

ট্রাম্প প্রশাসনের আদেশে সম্প্রতি মার্কিন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান গুগল তাদের অ্যান্ড্রয়েড ব্যবসার লাইসেন্স হুয়াওয়ের জন্য স্থগিত করে। শুধু অ্যান্ড্রয়েড ওপেন সোর্স প্রকল্পের বাইরে গুগলের আর কোনো সেবা হুয়াওয়ের জন্য বন্ধ করার ঘোষণা দেয়। এতে হুয়াওয়ের ভবিষ্যৎ স্মার্টফোনে গুগলের জনপ্রিয় অ্যাপ ব্যবহারের সুবিধা বন্ধ হয়ে যায়। কয়েকটি বড় চিপ নির্মাতা ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানকে চাপ দিয়ে হুয়াওয়ের সঙ্গে সম্পর্ক বন্ধ করতে বাধ্য করা হয়। এর পরপরই ওয়াই-ফাই অ্যালায়েন্স, ব্লুটুথ এসআইজি ও এসডি অ্যাসোসিয়েশন হুয়াওয়ের সঙ্গে সম্পর্ক না রাখার ঘোষণা দেয়।

অ্যান্ড্রয়েডের নিষেধাজ্ঞা বিবেচনা করে হুয়াওয়ে কর্তৃপক্ষ তাদের বিকল্প পরিকল্পনার বিষয়টি সামনে এনেছে। তাদের ভবিষ্যৎ স্মার্টফোনে নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম ‘আরকে’ বা ‘হংমেং’ ব্যবহৃত হতে পারে। হুয়াওয়ে ও অনার ফোনের গ্রাহকদের সফটওয়্যার নিরাপত্তা হালনাগাদ চালিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে হুয়াওয়ে। তবে, এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত গুগলের পক্ষ থেকে অ্যান্ড্রয়েড আপডেট নিয়ে মন্তব্য করা হয়নি। অবশ্য গুগল বর্তমান হুয়াওয়ে ডিভাইস ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তা আপডেট চালিয়ে যাওয়ার কথা বলেছে।

চলতি বছরের মার্চে হুয়াওয়ে এবং মার্কিন সরকারের মধ্যে চলমান উত্তেজনাকে কেন্দ্র করে হুয়াওয়ের কনজিউমার বিজনেস বিভাগের প্রধান নির্বাহী (সিইও) রিচার্ড ইউ বলেন, ‘হুয়াওয়ে এবং মার্কিন সরকারের মধ্যে উত্তেজনা চলছে। এতে হুয়াওয়ে যদি অ্যান্ড্রয়েড অথবা উইন্ডোজ ব্যবহার করতে না পারে সে জন্য হুয়াওয়ে তার স্মার্টফোন এবং কম্পিউটারের জন্য নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম তৈরি করছে।’সম্প্রতি হুয়াওয়ে চায়নার ট্রেডমার্ক অফিস অব ন্যাশনাল ইন্টেলেকচুয়াল প্রপার্টি অ্যাডমিনিস্ট্রেশন থেকে ‘হুয়াওয়ে হংমেং’ নামে ট্রেডমার্ক নিবন্ধন করেছে।

নিষেধাজ্ঞার পর হুয়াওয়ের অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে কিছু সেবার আর কোনো আপডেট ভার্সন দেবে না বলে জানায় গুগল। হুয়াওয়ে তখন জানায়, নিজেদের অপারেটিং সিস্টেম নিয়ে আগেই কাজ শুরু করেছিল। সেই অপারেটিং সিস্টেমের নাম ‘হংমেং’। অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতেই এ কাজ করেছে হুয়াওয়ে।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট দ্য ভার্জের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের মধ্যেই নতুন ওএস উন্মুক্ত করবে হুয়াওয়ে।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট অ্যান্ড্রয়েড পুলিশ এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, হুয়াওয়ের নতুন ওএস অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ও ওয়েব অ্যাপ সমর্থন করবে। হুয়াওয়ের ওএসে অ্যান্ড্রয়েড ওএস ৬০ শতাংশ দ্রুতগতিতে কাজ করবে।

প্রযুক্তি বিষয়ক কয়েকটি ওয়েবসাইটে বলা হচ্ছে, হুয়াওয়ের ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন মেট ৩০ ও মেট৩০ প্রোতে নতুন অপারেটিং সিস্টেম থাকবে। এই ওএস কম্পিউটার, গাড়ি, টিভি ও পরিধানযোগ্যপ্রযুক্তি পণ্যে ব্যবহার করা যাবে। তথ্যসূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া, হুয়াওয়ে সেন্ট্রাল।

LEAVE A REPLY