সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীদের কারসাজিতে অস্থির দেশের লবণের বাজার

0
9

নিজস্ব প্রতিবেদক: আমদানিতে ধীরগতির পাশাপাশি সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীদের কারসাজির মুখে চরম অস্থির দেশের লবণের বাজার। ভারত থেকে লবণ আমদানির সিদ্ধান্ত হলেও ঈদের আগে বাজারে আসছে না, নিশ্চিত হবার পর আবারো বেড়েছে দাম। চট্টগ্রামে একদিনের ব্যবধানে বস্তা প্রতি লবণের দাম বেড়েছে ৫০ থেকে ৬০ টাকা করে।
দেশের বাজারে লবণের সংকট আঁচ করতে পেরেই সরকার গত জুলাই মাসে প্রতিবেশী দেশ ভারত থেকে ৫ লাখ মেট্রিক লবণ আমদানির সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু সিদ্ধান্ত নেয়ার পর থেকেই শুরু হয় সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীদের কারসাজি এবং দীর্ঘসূত্রিতা।
লবণ আমদানির জন্য ঋণপত্র খোলার সর্বশেষ তারিখ ছিলো ২১শে আগষ্ট। এ অবস্থায় আমদানিকৃত লবণ কোনোভাবেই ঈদের আগে দেশে আসছে না বলে জানিয়েছেন আমদানিকারক এবং ব্যবসায়ীরা।
চট্টগ্রামে কোরবানির ঈদের চাহিদা মাথায় রেখে চলতি বছরের মে মাস থেকেই বাড়ছিলো লবণের দাম। ৭০০ টাকা মূল্যের ৭৪ কেজির প্রতি বস্তা লবণের দাম বেড়ে দাঁড়ায় ১৩শ টাকায়।

তবে সরকার আমদানির সিদ্ধান্ত নেয়ার পরই আগষ্ট মাসে এসে লবণের দাম পড়তে থাকে। কিন্তু ঈদের আগে ভারতীয় লবণ বাজারে আসছে না নিশ্চিত হওয়ার দাম পুনরায় বাড়ছে।

আমদানিকারকদের তথ্য মতে, ২৮ হাজার মেট্রিক টন লবণ নিয়ে এম ভি ডেসটিনি নামের প্রথম জাহাজটি আগামী ৫ই সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম বন্দরের বর্হিনোঙ্গরে ভেড়ার কথা রয়েছে।

লবণ আমদানির এ ধীরগতিকে সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীদের কারসাজি হিসেবেই দেখছেন চামড়া ব্যবসায়ীরা।

বছরে ১৭ থেকে ১৮ লাখ মেট্রিক টন লবণের চাহিদা রয়েছে। এর বিপরীতে দেশে উৎপাদন হয় প্রায় ১৫ লাখ মেট্রিক টন লবণ। কিন্তু চলতি বছর ঘূর্ণিঝড় ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে ২ লাখ মেট্রিক টন লবণ নষ্ট হয়ে যায়।

সময় টিভি

LEAVE A REPLY