ঘূর্ণিঘড়ের কারণে ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি: ফরাসি প্রেসিডেন্ট

0
10

দেশ জনতা ডেস্ক:
ঘূর্ণিঝড় হারিকেন ইরমার কারণে ক্যারিবিয় দ্বীপগুলো ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এন্টিগুয়া ও বারবুডার প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, তাদের দেশে ঝড়ে অন্তত একজন নিহত হয়েছে আর দেশটির প্রায় ৯০ শতাংশ ভবনই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ফরাসী প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রঁ বলেছেন, সেন্ট মার্টিন ও সেন্ট বার্টস-এ ক্ষতির মাত্রাটা ব্যাপক। খবর বিবিসির।

ইরমা শুরুতেই আঘাত হানে এন্টিগুয়া ও বারবুডায়। তারপর যায় ফরাসীদের কাছে অবকাশ যাপনের সবচেয়ে জনপ্রিয় দ্বীপ সেন্ট মার্টিন ও সেন্ট বার্টসের দিকে।
এই দুটি দ্বীপে আঘাত হানার আগে ঘূর্ণিঝড়ে বাতাসের গতি ছিল ঘন্টায় ৩০০ কিলোমিটার। ফরাসী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন, এই ঝড়ের কারণে বন্যা হয়েছে এবং দ্বীপের ভবনগুলোর ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

বারবুডায় যে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা স্বীকারও করেছেন এন্টিগুয়া ও বারবুডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ব্রাউনি। বারবুডায় ঝড়ের মধ্যে পড়া একজন জানাচ্ছিলেন তার অভিজ্ঞতার কথা।

তিনি বলছেন, “আমার পুরো বাড়ি একটা মৃত্যু ফাঁদে পরিণত হয়েছিল। সেই ঘরে আটকা পড়েছিলাম আমরা সাতজন। আমরা সাহায্যের জন্য আর্তি করছিলাম আর খোদার কাছে প্রার্থনা করছিলাম।
দমকলকর্মীরা আমাদের উদ্ধারে এগিয়ে এসেছিল। আমার জীবনের জন্য ঈশ্বরকে ধন্যবাদ।”

অ্যামেরিকার ফ্লোরিডার পশ্চিম এলাকা থেকেও অনেককে সরিয়ে নেয়া হয়েছে এবং এই ঝড়ের প্রভাবে সেখানে ব্যাপক ভূমিধ্বসের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ক্যাটাগরি-ফাইভ বা সর্বোচ্চ মাত্রার ঘূর্ণিঝড় ইরমা এখন নর্দান ভার্জিন আইল্যান্ডের ওপর দিয়ে সামনের দিকে অগ্রসর হচ্ছে।

গত এক দশকের মধ্যে সবচেয়ে বেশি শক্তিশালী ঝড় হিসেবে ইরমাকে বিবেচনা করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার নাগাদ এই ঝড়টি পুয়ের্টো রিকো এবং ডমিনিক রিপাবলিক অতিক্রম করবে বলে এক পূর্বাভাসে জানিয়েছে মার্কিন ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার।

LEAVE A REPLY