রোহিঙ্গা গনহত্যা ও নির্যাতন : বরিশালে মানবাধকার সংগঠনের মানববন্ধন : ইসলামি আন্দোলনের বিক্ষোভ

0
11

বরিশাল ব্যুরো

“বিশ্ব বিবেক জাগ্রত হও” এই শ্লোগান নিয়ে মায়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিমদের নির্বিচারে গন হত্যা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে বিভাগীয় শহর বরিশাল নগরীতে পৃথক দুটি মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। সোমবার নগরীর বান্দ রোড ও অশ্বিনী কুমার টাউন হলের সামনে বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা ও বাংলাদেশ মানবাধীকার কমিশন ও ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ এর উদ্যোগে পৃথক পৃথক ভাবে এইে কর্মসূচি পালন করে।
কর্মসূচির অংশ হিসেবে বেলা ১১টার দিকে বান্দ রোডে বরিশাল অডিটরিয়ামের সামনে বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা বরিশাল মহানগর, জেলা ও সদর উপজেলার উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়। সংগঠনের বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুব মোর্সেদ শামীম এর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, বরিশাল মহানগর কমিটির সভাপতি ও বিসিসি সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর কহিনুর বেগম, সাধারন সম্পাদক ও আঞ্চলিক দৈনিক আজকের পরিবর্তন’র প্রকাশক ও সম্পাদক কাজী মিরাজ মাহমুদ, মোঃ জামাল উদ্দিন প্রমূখ।
এদিকে ১২টার দিকে একই দাবিতে নগরের সদর রোডে অশ্বিনী কুমার টাউন হলের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনর বরিশাল মহানগর শাখা। আবু মসুম ফয়সাল’র সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারন সম্পাদক কাজী আল মামুন, এমআর প্রিন্স প্রমূখ।
এছাড়া বিকাল ৪টায় নগরীর সদর রোডে অশ্বিনী কুমার হলের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ এর নেতা-কর্মীরা। ইসলামি আন্দোলন বরিশাল মহানগর এর মাওলানা ইদ্রিস আলীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন মহানগরের সহ-সভাপতি মাওলানা লুৎফর রহমান সংগঠনের মহানগর শাখার প্রধান উপদেষ্টা সৈয়দ নাছির আহম্মেদ কাওসার, সাধারন সম্পাদক মাওলানা জাকারীয়া হামিদী, জেলার সাধোরন সম্পাদক মাওঃ সিরাজুল ইসলাম, সহ-সাধারন সম্পাদক আবুল খায়ের প্রমুখ।
নেতৃবৃন্দ বলেন, বর্তমান সরকার মায়ানমারের সাথে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে মুসলমানদের ধর্ষন, নির্যাতন এবং পুড়িয়ে মারা সত্যেও কোন প্রতিবাদ করছে না। এমনকি নিন্দা পর্যন্ত জানায়নি সরকার। অথচ সরকার মায়ানমার থেকে চাল কিনতে যাচ্ছে। অচিরেই সরকারের মন্ত্রীকে মুসলিম হত্যাকারী মানায়ানমার থেকে ফিরিয়ে এনে অং সং সুচির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনার দাবী জানান তারা। পাশাপাশি গনহত্যা বন্ধে আন্তর্জাতিক সমাধান ও পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা সুমলমানদের বাংলাদেশে স্থান করে দেয়ার দাবী জানান।
বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে একে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি অশ্বিনী কুমার হলের সামনে থেকে শুরু হয় শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় অশ্বিনী কুমার হলের সামনে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে অং সং সুচির নোবেল পুরস্কার প্রত্যাহারের দাবীর পাশাপাশি তার কুশপুত্তলিকা দাহ করেন ইসলামী আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ। এর পর রোহিঙ্গা মুসলমানদের জন্য বিশেষ দোয়া-মোনাজাত পরিচালনার মধ্যে দিয়ে বিক্ষোভ কর্মসূচির সমাপ্তি হয়।

LEAVE A REPLY