আড়াইহাজারের গোপালদী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষা সফরের নামে ছাত্রীদের নিয়ে শিক্ষক ও কমিটির এক সাথে গোসলের দৃশ্য ফেসবুকে সমালোচনার ঝড়

আপডেট: এপ্রিল ৩, ২০২২
0

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ : শিক্ষা সফরের নামে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে একটি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের নিয়ে শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের এক সঙ্গে নদীতে গোসলের ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা চলছে। ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক গতকাল রবিবার দুুপুরে তার ফেসবুকে ছবিগুলো আপলোড করার পর থেকে শিক্ষক অভিভাবকসহ প্রশাসনের কর্তা ব্যক্তিরা এ প্রতিদেককের কাছে তাদের বিরূপ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।
জানা যায়, প্রশাসনের অনুমতি না নিয়ে গত শুক্রবার গোপালদী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ প্রাপ্ত ছাত্রীদের নিয়ে সুনামগঞ্জ জেলার ভোলাগঞ্জে যান। পরদিন ওই এলাকার নদীতে ছাত্রীদের নিয়ে ওই স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি সদস্য ও শিক্ষকরা টি শার্টসহ গোসলের পোশাক পড়ে গোসল করতে নামেন। এ দৃশ্য ধারণ করে প্রধান শিক্ষক কামাল হোসেন তার ব্যক্তিগত ফেসবুকে আপলোড দেয়।

আড়াইহাজার পাইলট মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ইয়াহিয়া স্বপন বলেন, শিক্ষা সফর মানে শিক্ষার্থীদের মান উন্নয়নে সহায়তা করে। ছাত্রীদের নিয়ে কমিটির সদস্য ও শিক্ষকদের একসাথে গোসল আর এ দৃশ্য ফেসবুকে আপলোডে কতটুকু মান বৃদ্ধি হয়েছে যারা আয়োজন করেছেন তারাই বলতে পারবেন। তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ ধরনের দৃশ্য আপলোড একটি গর্হিত কাজ বলে তিনি মনে করছেন।
স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের সভাপতি ও দুপ্তারা সেন্ট্রাল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গিয়াসউদ্দিন সরকার বলেন, ছাত্রীদের নিয়ে কমিটির সদস্য ও শিক্ষকদের একসাথে গোসল দৃশ্য দেখে শিক্ষক হিসেবে তিনি নিজেও বিব্রত। শিক্ষা সফরের নামে এ ধরনের দৃশ্য কাম্য নয় বলে তিনি মন্তব্য করেন।

নদীতে ছাত্রীদের নিয়ে কমিটি ও শিক্ষকদের এক সাথে গোসলের ঘটনা দৃশ্যকে স্বাভাবিক মনে করছেন গোপালদী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামাল হোসেন। এ সফরে উপজেলা প্রশাসনের অনুমতির ব্যপারে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার রফিকুল ইসলাম বলেন, নিজ এলাকা বাইরে শিক্ষা সফর কিংবা পিকনিক যে নামেই হোক সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের নিয়ে যেতে চাইলে উপজেলা প্রশাসনের অনুমতি নিতে হয়। গোপালদী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এ ক্ষেত্রে কোন পূর্বানুমতি নেয়নি। ছাত্রীদের নিয়ে কমিটি ও শিক্ষকদের এক সাথে গোসলের ছবি দেখে তিনি বলেন, শিক্ষকদের শিক্ষকসুলভ আচরণ হয়নি। কয়েক দিনের মধ্যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে নিয়ে সভা করে এ বিষয়টা কেন্দ্র করে ্একটি ম্যাসেজ দেয়া হবে।

অভিযোগ রয়েছে, আড়াইহাজার উপজেলার প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও কলেজের শিক্ষকরা শিক্ষা সফরের নামে অহেতুক ঘুরাফেরা, শিক্ষাপ্রতিষ্টানের ক্লাস ফাঁিক দেওয়া, কোন কারন ছাড়াই উপজেলায় ও শিক্ষা অফিসে ঘুরাঘুরি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে রয়েছেন। এই সকল কারণে আড়াইহাজারে শিক্ষা প্রসারে ব্যাঘাত ঘটছে। বিষয়টি নিয়ে শিক্ষা মন্ত্রীর দৃষ্টি কামনা করেছেন উপজেলাবাসী।

এম আর কামাল
নারায়ণগঞ্জ
তারিখ ঃ ০৩-০৪-২০২২