গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, নিন্দা ও সমালোচনার ঝড়

আপডেট: অক্টোবর ৫, ২০২০
0

নোয়াখালী : নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল হওয়ায় দেশজুড়ে নিন্দা ও সমালোচনার ঝড় বইছে।

এ ঘটনায় দুই মামলা করা হয়েছে। নির্যাতিত গৃহবধূ নিজে বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি, অন্যটি পর্নোগ্রাফি আইনে বেগমগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন। দুই মামলায় ৯ জনের নাম উল্লেখসহ ৭-৮ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে।

বেগমগঞ্জের একলাশপুরে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে ধর্ষণের চেষ্টা ও নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। স্থানীয় চিহ্নিত বখাটে একদল যুবকের এমন বর্বর কাণ্ডে হতবাক সবাই। ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পর থেকে চলছে পুরো জেলাজুড়ে নিন্দা ও সমালোচনার ঝড়।

এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। বাকিদের ধরতে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। অপরদিকে এ ন্যাক্কারজনক ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন ভুক্তভোগী, তার পরিবার ও এলাকাবাসী।

নির্যাতিত গৃহবধূর স্বজনরা জানান, স্বামী অন্যত্র বিয়ে করায় বাবার বাড়ি বেগমগঞ্জের একলাশপুরে থাকতেন নির্যাতিত এ নারী। দীর্ঘদিন পর গেলো ২ সেপ্টেম্বর স্ত্রীর সাথে দেখা করতে আসেন তার স্বামী। স্থানীয় কয়েকজন যুবক অনৈতিক কাজের অভিযোগ এনে গৃহবধূকে মারধর করে। এক পর্যায়ে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণ করে তারা।

নির্যাতিতা গৃহবধূর ভাই জামাল উদ্দিন ও নির্যাতিতা গৃহবধূর বোন সাথী আক্তার অভিযোগ করে জানান, নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে টাকা দাবি করেছিল ঐ বখাটের দল। টাকা না দিতে পেরে তাদের ভয়ে বাড়ি ছেলে পালিয়ে যায় ভুক্তভোগী পরিবারটি। পরে গেলো রোববার ভিডিওটি ছড়িয়ে দেওয়া হয়।

এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে জড়িতদের দ্রুত আইনের আওয়তায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন নির্যাতিতা গৃহবধূ, তার বাবা নূর ইসলাম ও স্থানীয় এলাকাবাসীসহ জেলার সর্বস্তরের মানুষ।
নোয়াখালীর পুলিশ সুপার মোঃ আলমগীর হোসেন বলেন, ন্যাক্কারজনক এ ঘটনায় চারজনকে আটক করেছে পুলিশ ও র্যা ব। এ ঘটনায় জড়িত বাকিদের আটক করতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

LEAVE A REPLY