টিপ নিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাস: এবার পুলিশ কর্মকর্তা ক্লোজড

আপডেট: এপ্রিল ৬, ২০২২
0

টিপ নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ায় এবার সিলেট জেলা পুলিশের কোর্ট পরিদর্শক লিয়াকত আলীকে ক্লোজড করা হয়েছে।

একই সঙ্গে বিষয়টি তদন্তের জন্য জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছেন।

সোমবার (৪ মার্চ) রাতে তাকে ক্লোজড করে এ আদেশ দেন পুলিশ সুপার। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন।

এর আগে, টিপ পরা নিয়ে ফেসবুকে লিয়াকত আলী লিখেছিলেন, টিপ নিয়ে নারীকে হয়রানি। ফালতু ভাবনা : (১৮+) টিপ নিয়ে নারীকে হয়রানি করার প্রতিবাদে অনেক পুরুষ নিজেরাই কপালে টিপ লাগাইয়া প্রতিবাদ জানাচ্ছে। কিন্তু আমি ভবিষ্যৎ ভাবনায় শঙ্কিত। বিভিন্ন শহরে অনেক নারী যেসব খোলামেলা পোশাক পরে চলাফেরা করেন তার মধ্যে অনেকেরই ব্রায়ের ওপর দিকে প্রায় অর্ধেক আন-কভার থাকে।

পাতলা কাপড়ের কারণে বাকি অর্ধেকও দৃশ্যমান থাকে। এখন যদি কোনও পুরুষ এইভাবে ব্রা পরার কারণে কোনও নারীকে হয়রানি করে তবে কি তখনও আজকে কপালে টিপ লাগানো প্রতিবাদকারী পুরুষগণ একইভাবে ব্রা পরে প্রতিবাদ করবেন?

এ নিয়ে সিলেট জুড়ে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। বিভিন্ন মহল তার আপত্তিকর এমন মন্তব্যের বিষোদগার করেছেন। পুলিশ কর্মকর্তা লিয়াকত আলীর ফেসবুক পোস্ট ভাইরাল হলে সমালোচনা ঝড়ের কবলে পড়েন। অবস্থা বেগতিক দেখে ওই পুলিশ কর্মকর্তা নিজের ফেসবুক ওয়াল থেকে পোস্টটি মুছে দেন।

সিলেট জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এডিসি মিডিয়া) মো. লুৎফর রহমান বলেন, পুরুষের টিপ পরা নিয়ে প্রতিবাদের বিরুদ্ধে গিয়ে একজন কর্মকর্তার এ ধরণের বিরূপ মন্তব্য পুরো পুলিশ বিভাগকে কলুষিত করেছে। যে কারণে ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিয়েছি। পুলিশ সুপারের নির্দেশক্রমে তাকে ক্লোজড করে পুলিশ লাইন্সে যুক্ত করা হয়েছে।

তার বিষয়টি তদন্তের জন্য তিন সদস্যের বিভাগীয় কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে আগামী তিন দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলেছেন পুলিশ সুপার।