জনগণের পকেট কাটতে ও একটি গোষ্ঠীকে সুবিধা দিতে অবৈধ সরকার গ্যাস- বিদ্যুতের দাম বাড়াচ্ছে — মীর্জা ফখরুল

আপডেট: জানুয়ারি ১৮, ২০২৩
0

বিদ্যুতের পর আবারও গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির ঘোষণা দিয়েছে সরকার। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির সরকারী এই সিদ্ধান্তকে গণ-বিরোধী আখ্যায়িত করে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

আজ এক বিবৃতিতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির পর এবার গ্যাসের মূল্য প্রায় ৩ (তিন) গুণ বৃদ্ধি, সরকারের গণ-বিরোধী চরিত্রের বহিঃপ্রকাশ। সরকার বিদ্যুতের পর গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি করে চরম দূর্ভোগে থাকা জনগণকে সীমাহীন দূর্ভোগের মধ্যে ঠেলে দিয়েছে। গণ-বিরোধী সরকারের দুর্নীতি, লুটপাট, অ-ব্যবস্থাপনা, ভূলনীতির কারণে এমনিতেই জনগণ চরম দুঃসময় অতিক্রম করছে। এর মধ্যে গত ৪ দিন আগে বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি পর এখন বৃহৎ, মাঝারী, ক্ষুদ্র-কুটির শিল্প, বিদ্যুৎ কেন্দ্র এমনকি হোটেল রেস্তোরা খাতে গ্যাসের মূল্য ২ থেকে ৩ গুণ বৃদ্ধির ফলে প্রতিটি পণ্য, বিদ্যুৎ ও খাদ্যের দাম আবারও অ-স্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পাবে। গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি না করতে ব্যবসায়ীদের অনুরোধ উপেক্ষা করে একতরফা গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির ফলে সবকিছুতেই এর প্রভাব পড়বে। এমনিতেই গ্যাসের সংকট চরমে, কল-কারখানা এমনকি বাসা বাড়িতে নিরবিচ্ছিন্ন গ্যাস সরবরাহ নেই, গ্যাস সংকটে বাসা বাড়ির চুলা জ¦লছেই না, কল-কারখানার উৎপাদনও ক্রমাগত হ্রাস পাচ্ছে। এমন অসহনীয় পরিস্থিতিতে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির ফলে শিল্প কারখানা ঝুঁকির মধ্যে পরবে, জনগণের জীবন যাত্রার ব্যয় আরও বৃদ্ধি পাবে।

সরকার নির্বাচিত নয় বলে, একের পর এক গণ-বিরোধী সিদ্ধান্ত জনগণের উপর চাপিয়ে দিচ্ছে। জনগণের পকেট কাটতে ও একটি গোষ্ঠীকে সুবিধা দিতে অবৈধ সরকার গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি করেছে। সরকারের দুঃশাসন, দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের কারণে দেশের অর্থনীতি ভেঙ্গে পড়েছে। ডলার সংকটের কারণে এলসি খোলা যাচ্ছে না, ব্যবসা বাণিজ্যে চরম অস্থিরতা ও হতাশা বিরাজ করছে। জনজীবনে চলছে মারাত্মক সংকট। উন্নয়নের নামে দেশে চলছে সীমাহীন লুটপাট। দেশে গণতন্ত্র নেই, বাকস্বাধীনতা নেই, বিচার বিভাগে স্বাধীনতা নেই, নেই রাজনৈতিক অধিকারও। প্রতিবাদ করলেই নামে নির্যাতনের খড়গ। চাল, চিনি, তেলসহ নিত্যপন্যের উর্ধ্বগতি, গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানিসহ সব জিনিসের দাম এখন আকাশচুম্বি। সরকারের দুর্নীতি, অ-ব্যবস্থাপনা ও দলীয় লোকদের সিন্ডিকেটের কারণে বিগত ১৪ বছর ধরেই সকল জিনিসের দাম বেড়েছে কয়েক গুণের বেশি। বর্তমানে সাধারণ মানুষের ত্রাহী অবস্থা, মানুষের বেঁচে থাকাই এখন দায়। এ অবস্থায় আবারও বিদ্যুতের পর গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি জনদুর্ভোগ আরও বাড়াবে, যা মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা।

বিএনপি মহাসচিব অবিলম্বে সরকারকে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির গণ-বিরোধী সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার আহ্বান জানাচ্ছি। গ্যাস, বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি প্রত্যাহারের দাবী জানাচ্ছি।