রেইনকোট ভেবে পিপিই চুরি করে করোনা হলো চোরের

আপডেট: আগস্ট ২, ২০২০
0

দেশ জনতা ডেস্কঃ বৈচিত্র্যের দেশ মহাভারত। সিনেমার চিত্রনাট্য হলে নিশ্চিত পুরস্কার পেত এই ঘটনা, কিন্তু এর নাম যে জীবন! মাশুল গুণতে হবে কড়ায় গণ্ডায়। আর শত্রুর নাম যদি হয় করোনা, তবে তো মৃত্যুর হাতছানি। সেটা আরো একবার হাড়ে হাড়ে টের পেলেন ভারতের নাগপুরের এক ব্যক্তি। অভিযোগ, তিনি হাসপাতাল থেকে রেনইকোট ভেবে পিপিই কিট চুরি করেছিলেন। পরিত্যক্ত সেই পিপিই ব্যবহারের জেরে এখন তিনি করোনায় আক্রান্ত!

নাগপুরের ওই বাসিন্দা পেশায় ফল বিক্রেতা। গত বুধবার তিনি মদ্যপ অবস্থায় একটি দুর্ঘটনা ঘটান। তাকে মায়ো হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়েও দেন চিকিৎসকরা। বাড়ি ফেরার সময়ে তিনি একটি পিপিই কিট তুলে আনেন হাসপাতাল থেকে। তিনি অবশ্য ভেবেছিলেন ওটা রেইনকোট।

কিছুক্ষণের মধ্যেই খবর পেয়ে স্বাস্থ্য দপ্তরের লোকজন তার সঙ্গে যোগাযোগ করে। তার থেকে ওই পিপিই কিট নিয়ে জ্বালিয়ে দেওয়া হয়। তিনি স্বীকারও করে নেন যে, তিনি এই পিপিই কিট চুরি করেছেন। এরপরেই তার করোনা পরীক্ষা হয়। দেখা যায়, সন্দেহই সত্যি হয়েছে। তিনি করোনা আক্রান্ত।

ওই ব্যক্তি পিপিই কিট গায়ে দিয়ে যাদের সংস্পর্শে এসেছিলেন, তাদের সকলকে চিহ্নিত করে লালারস পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের অবশ্য করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

প্রসঙ্গত, গোটা মহারাষ্ট্রই এখন করোনার এপিসেন্টার হয়ে উঠেছে। গত ২৪ ঘণ্টাতেই সে রাজ্যে আক্রান্ত হয়েছেন ১০ হাজারের বেশি মানুষ। সব মিলে আক্রান্ত দেড় লাখেরও বেশি। এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে অন্তত ১৫ হাজার মানুষের।

সূত্র : নিউজ ১৮।

LEAVE A REPLY